‘বিয়ে করলে ঘোষণা দিয়েই করব’

প্রকাশ | ০৩ নভেম্বর ২০১৭, ১৩:৩১ | আপডেট: ০৩ নভেম্বর ২০১৭, ১৫:৫০

এ এইচ মুরাদ

সুন্দরী নায়িকা হিসেবে পরিচিত তমা মির্জা। রূপের সঙ্গে অভিনয় গুণের মিশেলে অর্জন করেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। শুক্রবার (৩ নভেম্বর) মুক্তি পেয়েছে তার ক্যারিয়ারের ১৪তম ছবি ‘গেম রিটার্নস’। ছবিটি মুক্তি উপলক্ষ্যে তমা মির্জা মুখোমুখি হয়েছেন আরটিভি অনলাইনের। কথার পিঠে কথার ডালপালা ছাড়িয়ে গেম রিটার্নস, চলচ্চিত্র থেকে বিরতি নেয়া, পছন্দের নায়ক, নতুন কাজ ও বিয়ে নিয়ে খোলামেলা কথা বলেছেন। তমা মির্জার দীর্ঘ সাক্ষাৎকার নিয়েছেন জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক এ এইচ মুরাদ। আজ ছাপা হলো দ্বিতীয় ও শেষ কিস্তি।

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে আপনার ভাবনা কী?

আমার তমা মির্জা নামটা ইন্ডাস্ট্রি দিয়েছে। অনেকেই বলে থাকেন ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা ভালো না। আমি বলবো ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে আজ এতো কথা বলতে পারছ, এখানে কাজ করেছ বলে। যারা ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে এসব কথা বলে আমি বলব তাদের ইন্ডাস্ট্রির প্রতি শ্রদ্ধাবোধ নেই। আমাদের দেশের ইন্ডাস্ট্রি ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। কলকাতার ইন্ডাস্ট্রির অবস্থাও কিন্তু ভালো না। ওদের দেশের হিন্দি, তামিল, তেলেগু ছবি দেখার কেউ যদি মনে করে তখন কলকাতার ছবি দেখে।

একটি চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে ‘মিশন আমেরিকা’সহ কয়েকটি ছবিতে আপনার অভিনয়ের কথা ছিল।

একই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে তিনটি ছবির জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। ‘মন বোঝে না’ নামে ছবিটি শিগগিরই মুক্তি পাবে। ছবিতে আমার সঙ্গে রয়েছেন আরিফিন শুভ। ‘মিশন আমেরিকা’র শুটিং তো পরে আর শুরুই হয়নি। অন্য একটি ছবির শুটিং শুরু করেছিলাম। পরবর্তীতে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সেটা আর করেনি। আমার পড়াশোনায় বেশ গ্যাপ হয়ে যাবার কারণে কাজ থেকে বিরতি নিয়েছিলাম তখন। পড়াশোনা গুছিয়ে নিয়ে পরে আবার কাজে নিয়িমিত হলাম। দ্যাটস ইট। এছাড়া আর কিছু না।

কখনো ভেবেছিলেন নায়িকা হবেন?

কোনো প্ল্যান ছিল না, কখনো ভাবিনি নায়িকা হব। আমরা সুন্দর কাউকে দেখলেই বলি নায়কের মতো লাগছে, নায়িকার মতো লাগছে ক্লাস নাইনে পড়ার সময় থেকেই এমন অনেক কমপ্লিমেন্ট পেতাম। কিন্তু অভিনয় করব এই ভাবনাই ছিল না।

নায়িকা হলেন কীভাবে?

হঠাৎ করেই অফার আসে। নিয়মিত নাচ করতাম। নাচের জন্য অনেক সাঁজগোঁজ করতে হতো। সেখান থেকেই কোনো পরিচালকের হয়তো মনে হয়েছে মেয়েটি সুন্দর। তাকে নিয়ে চলচ্চিত্র বানানো যায়!

ঢালিউডে আপনার ৩ জন পছন্দের নায়ক সম্পর্কে বলুন

সেক্ষেত্রে প্রথমেই আমি যার নামটি বলব যিনি দাঁড়ালেই একটা ফ্রেম হয়ে যায়। তিনি যা করেন তাই অভিনয় হয়ে যায়। তিনি ঢালিউডের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান। তারপর অনেকেই আছেন। এর মধ্যে রোজ নামে একটা ছেলে আছে। ‘দবির সাহেবের সংসার’ ছবিতে অভিনয় করেছিল তাকে রাখব। ৩ জনের আরেকজন হলো শাহরিয়াজ। তার সঙ্গে আমি ‘চল পালাই’ নামে একটা ছবি করেছি। আমি আগের কারো নাম বলিনি। শুধু এখনকার সময়ের কথা বললাম। আমিন ভাই (আমিন খান), ফেরদৌস ভাই (নায়ক ফেরদৌস) তারা তো দুর্দান্ত অভিনেতা। তাদেরকে জাজ করার ক্ষমতাও আমার নেই বলে মনে করি। 

নতুন কি কাজ করছেন?

আপাতত কোনো কাজ হাতে নিচ্ছি না। এখন ‘গেম রিটার্নস’ ছবির প্রচারণা নিয়ে ব্যস্ত থাকতে চাই। এছাড়াও ডিসেম্বরে ‘চল পালাই’ মুক্তি পাচ্ছে ছবিটির প্রচারণার সঙ্গে নিজেকে যুক্ত রাখব। আমি এলএলবি নিয়ে পড়াশোনা করছি। সামনে সেমিস্টার ফাইনাল পড়াশোনাতেও সময় দিতে হবে। আসলে সবশেষ করে জানুয়ারি থেকে নতুন কাজের প্ল্যান করব ভাবছি।

এবার একটু ভিন্ন প্রসঙ্গে আসা যাক। ছয় বছরের ক্যারিয়ারে অনেক নায়কের বিপরীতে অভিনয় করেছেন কাউকে কি মনে ধরেনি? 

আমি যাদের সঙ্গে কাজ করি তাদের সহকর্মী ও বন্ধু ছাড়া আর কিছু ভাবতে চাই না। ফিল্মে আমি পারসোনাল লাইফ টানতে চাই না। ফিল্মে পারসোনাল লাইফ না আনাই ভালো বলে মনে করি। প্রফেশনাল জায়গাটা প্রফেশনাল হওয়াই ভালো।

তার মানে চলচ্চিত্রের সঙ্গে জড়িত কাউকে বিয়ে করবেন না

১০০ পার্সেন্ট নিশ্চিত থাকেন কোনো সম্ভাবনা নাই। হাহাহা (হাসি)।

বিয়ে করছেন কবে?

হুম...(খানিকটা সময় নিয়ে)। আরো দুই বছর পরে।

দুই বছর পর বিয়ে করবেন নাকি গোপন বিয়ের ঘোষণা দেবেন? এমন তো হচ্ছে আজকাল!

আমার এসব স্বভাব নাই। এত বড় স্টার না আমি যে বিয়ের কথা লুকিয়ে রাখতে হবে। আমি ছোটখাটো মানুষ টুকটাক কাজ করি। বিয়ে করলে ঘোষণা দিয়ে করব।

এম/এসজে