close
ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭ | ০৬ কার্তিক ১৪২৪

ঈদে বন্ধ থাকবে সিনেমা হল!

এ এইচ মুরাদ
|  ১৯ জুন ২০১৭, ১১:০৭ | আপডেট : ১৯ জুন ২০১৭, ১৭:৫২
গেলো কয়েক বছর ধরে ঈদে জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত বেশ কিছু ছবি ব্যবসা সফল হয়েছে। এছাড়া ঈদে এ প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের 'শিকারি' ও 'বাদশা- দ্য ডন' যৌথ প্রযোজনার ছবি দু'টো দেখার জন্য হলে দর্শকদের উপচেপড়া ভিড় ছিল। সারা বছর ব্যবসায়িক ক্ষতির মধ্যে দিয়েই ব্যবসা করতে হচ্ছে। ঈদ এলে ক্ষতির পরিমাণ কমিয়ে আনার একটা সুযোগ তৈরি হয়।

আমাদের প্রত্যাশা এবার ঈদেও যৌথ প্রযোজনার 'নবাব' ও 'বস টু' ছবি ভালো ব্যবসা করবে। ছবি দু'টোতে আমরা টাকাও লগ্নি করেছি। কিন্তু অনিয়মের অভিযোগ এনে ছবি দু'টো মুক্তিতে বাধা দেয়ার চেষ্টা করছে একটি মহল। যদি এ ছবি দু'টো মুক্তি না দেয়া হয়, দরকার হলে ঈদে আমরা সিনেমা হলই বন্ধ রাখব। বললেন সিনেমা হল মালিক, প্রদর্শক সমিতি ও বুকিং এজেন্ট নেতারা।

কদিন ধরে যৌথ প্রযোজনার নামে প্রতারণা হচ্ছে বলে ‘বস টু’ ও ‘নবাব’ ছবি নামে অভিযোগ করে আসছিল এফডিসির ১৪টি সংগঠন। ছবি দু’টো সেন্সর যাতে না হয় এবং এদেশের প্রেক্ষাগৃহে না মুক্তি পায় এ নিয়ে আন্দোলন করছে তারা। এর প্রেক্ষিতে রোববার রাতে জরুরি ভিত্তিতে চলচ্চিত্র বুকিং এজেন্ট, প্রদর্শক সমিতি ও হল মালিকদের যৌথ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজ বলেন, ঈদে জাজের দু’টো ছবিই মুক্তি পাবে। ১টি ছবি আমরা মুক্তি দেব না, দিলে দু’টোই মুক্তি দেব। আর যদি আমি নবাব, বস টু মুক্তি দিতে না পারি তাহলে আমার ১২টি সিনেমা হল রয়েছে তা বন্ধ করে দেব।  

তিনি আরো বলেন, এ দু’টো ছবিতে ক্যামেরাম্যান, কাহিনীকার, অভিনয় শিল্পী সবকিছুতেই দুই দেশের শিল্পীদের সমানভাবে রাখা হয়েছে। তাহলে এ আন্দোলন কেন?

শাকিব খান বলেন, যৌথ প্রযোজনার সব নিয়ম মেনেই ‘নবাব’ নির্মিত হয়েছে। তাহলে যারা আমার ছবি মুক্তি না পায় এ নিয়ে আন্দোলন করছেন। আমার প্রশ্ন হলো, তারা কিসের ভিত্তিতে আন্দোলন করছেন। এসব অযথা আন্দোলন না করে কাজে মনোযোগ দিন। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার চাওয়া যারা ভালো কাজ করতে করছেন তাদের শান্তিপূর্ণভাবে কাজের পরিবেশ দেয়ার বিষয়টির দিকে আপনি লক্ষ্য করবেন।

 

সংবাদ সম্মেলনে বুকিং এজেন্ট নেতা ও প্রদর্শক সমিতির নেতাদের প্রশ্ন করা হয় 'নবাব' এবং 'বস টু'র বাইরে ঈদে মুক্তি প্রতীক্ষিত 'রাজনীতি' ও 'রংবাজ' ছবির নায়কও শাকিব খান। দু'টো ছবিই বিগ বাজেটের। যদি 'নবাব' ও 'বস টু' মুক্তি না পায় আপনারা সিনেমা হল বন্ধ রাখবেন বলছেন। তাহলে বাকি যে ছবি রয়েছে ওই ছবিগুলোর ক্ষতির ভার কে নেবে? এ প্রশ্ন শুনে বুকিং এজেন্ট ও প্রদর্শক সমিতির নেতারা চটে যান। সংবাদকর্মীরাও প্রশ্নের সঠিক জবাব না পেয়ে একের পর এক প্রশ্ন করতে থাকেন। এ সময় অনুষ্ঠান স্থলে সাময়িক উত্তেজনার তৈরি হয়। এমন পরিস্থিতিতে জাজের কর্ণধার আবদুল আজিজ চালকের আসনে অবস্থান নিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেন।   

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন প্রদর্শক চলচ্চিত্র সমিতি সভাপতি ইফতেখার নওশাদ, উপদেষ্টা সুদীপ্ত,  বুকিং এজেন্ট সমিতি সভাপতি সরয়ার আলী দিপু, চলচ্চিত্র প্রযোজক মোহাম্মাদ ইকবাল, নায়ক শাকিব খান, আরিফিন শুভ, ফেরদৌস, নায়িকা পিয়া বিপাশা, বিপাশা কবির, মিষ্টি জান্নাত, মেঘলা, অভিনেতা নাদের চৌধুরী, শিবা, অমিত হাসান, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজ, জাজের সিইও আলিমুল্লাহ খোকনসহ অনেকে।

এইচএম

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়