• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫

ভক্তকে দেখতে হাসপাতালে আরিয়ানা (ভিডিও)

বিনোদন ডেস্ক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৩ জুন ২০১৭, ১১:৪৬ | আপডেট : ০৩ জুন ২০১৭, ১৫:২৬
মার্কিন সঙ্গীতশিল্পী আরিয়ানা গ্রান্ডের কনসার্টে আত্মঘাতী হামলার ঘটনা ঘটে। গেলো ২২ মে যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টারে ওই কনসার্টে হামলায় ২২ জন নিহত হন। আহত হন ৬৪ জন।

রোববার আহতদের ব্যক্তিদের সম্মানে ও অর্থসহায়তায় ম্যানচেস্টারে আয়োজিত এক কনসার্টে যোগ দিচ্ছেন এ গায়িকা। কনসার্টটি উপলক্ষে শুক্রবার যুক্তরাজ্যে আসেন তিনি।

সেখানে রয়েল ম্যানচেস্টার চিলড্রেন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত শিশু ভক্তদের দেখতে যান আরিয়ানা।

হঠাৎ করেই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ভক্তরা প্রিয় শিল্পীকে দেখে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন সবাই।

এ নিয়ে জাদেন নামে আহত এক মেয়ের মা পিটার মান লিখেছেন,  তার আগমনে আমি এতটাই খুশি যে মনে হচ্ছে আনন্দে ফেটে পড়ব। এর আগে জাদেনকে এতটা আনন্দিত হতে দেখিনি কখনো। সেতো আবেগে কেঁদে ফেলেছিল।

ওই ঘটনায় আহত ১৪ বছর বয়সী ইভি মিলস নামে আরো একজন মেয়ে দেখতে যান তিনি। এ সময় হাসপাতালে নার্স এবং কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেছিলেন আরিয়ানা।

কনসার্টে আরিয়ানার সঙ্গে গাইবেন কেটি পেরি, জাস্টিন বিবার, মাইলি সাইরাস, উশার, ফ্যারেল উইলিয়ামস, নিয়াল হোরান, ব্যান্ড টেক দ্যাট ও কোল্ড প্লে। ‘ওয়ান লাভ ম্যানচেস্টার’ নামে কনসার্টটি অনুষ্ঠিত হবে ওল্ড ট্রাফোর্ড ক্রিকেট গ্রাউন্ডে।

সেদিন রাতে ম্যানচেস্টারের একটি ইনডোর স্টেডিয়ামে আয়োজিত আরিয়ানা গ্রান্ডের কনসার্টে সমবেত হয়েছিলেন হাজারো মানুষ। উচ্ছ্বাস আর উদ্দীপনা নিয়ে সেখানে সমবেত হয়েছিলেন বিশেষত তরুণরা। কিন্তু কনসার্টের শেষ দিকে স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৩৩ মিনিটে কনসার্ট মঞ্চ থেকে আরিয়ানা গ্রান্ডে নেমে যাবার পর পরই ভিড়ের মধ্যে ঘটে একটি বিস্ফোরণ। 

এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ২২ জন। আহত হন আরো ৬৪ জন, যার মধ্যে ১৯ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহতদের মধ্যে ১৬ বছরের কম বয়সী ১২টি শিশু রয়েছে। এ হামলার ঘটনায় ব্রিটেনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সতর্কতা 'সিভিয়ার' জারি করা হয়। 

দেশটির পুলিশ জানায়, ম্যানচেস্টার অ্যারেনা নামের ওই স্টেডিয়ামের ধারণক্ষমতা ২১ হাজার। কনসার্টে প্রচুর মানুষ যোগ দিয়েছিল, যার অধিকাংশই ছিল তরুণ। হামলায় নিহতদের মধ্যে শিশুও রয়েছে নিশ্চিত করে ম্যানচেস্টারের চিফ কনস্টেবল ইয়ান হপকিন্স বলেন, গেত রাতের হামলাটি একজন ব্যক্তি চালিয়েছিল বলে আমরা ধারণা করছি। তবে হামলার পরিকল্পনার সঙ্গে আরো কেউ জড়িত কিনা, তা আমরা খতিয়ে দেখছি।

২০০৫ সালের পর যুক্তরাজ্যে এটিই সবচে' বড় সন্ত্রাসী হামলা। ওই সময় দেশটির ৪ জন নাগরিক লন্ডনের একটি মেট্রো স্টেশনে আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছিল, যেখানে নিহত হয়েছিলেন ৫২ জন। এরপর দেশটিতে সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় বেশ কয়েকবার উচ্চসতর্কতা জারি হলেও এমন মাত্রার হামলার ঘটনা আর ঘটেনি। 

 

এইচএম 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়