• ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ৩ কার্তিক ১৪২৫

কেনো দেখবেন ‘সুলতানা বিবিয়ানা’

এ এইচ মুরাদ
|  ৩১ মার্চ ২০১৭, ১২:৩৫ | আপডেট : ৩১ মার্চ ২০১৭, ১৯:০৬
দেশীয় ছবির জনপ্রিয় জুটি আঁচল-বাপ্পী অভিনীত 'সুলতানা বিবিয়ানা' সারাদেশের ৫০ টির বেশি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে শুক্রবার। পরিচালনা করেছেন জনপ্রিয় নাট্য নির্মাতা হিমেল আশরাফ। পরিচালকের এটি প্রথম চলচ্চিত্র।

গল্পে দেখা যাবে, একজন ছেলে ফুল চাষ কিভাবে করে, তা শিখতে চায়। তাই সে ঢাকার অদূরে একটি গ্রামে একজন ফুল চাষীর কাছে প্রশিক্ষণ নিতে থাকেন। এরই মধ্যে পাশের ক্ষেতের ফুল চাষীর মেয়ের প্রেমে পড়ে যায় ছেলেটি। এরপর ঘটনার আবর্তে ঘটতে থাকে নানা ধরনের ঘটনা।

আরশাদ আদনান প্রযোজিত রোমান্টিক গল্পের ছবিতে আরো অভিনয় করেছেন মামুনর রশীদ, মাহমুদুল ইসলাম মিঠু, শহীদুজ্জামান সেলিম।  

গেলো কয়েক মাসে মুক্তিপ্রাপ্ত বেশিরভাগ ছবি দর্শকদের মাঝে সাড়া ফেলতে পারেনি। নতুন এই ছবিটি দর্শক কেনো দেখবেন আরটিভি অনলাইনের এমন প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন পরিচালক, নায়ক-নায়িকা ও প্রযোজক।  

‘সুলতানা বিবিয়ানা’র চিত্রনাট্য লিখেছেন সমুদ্রে নিখোঁজ হওয়া নাট্যকার ফারুক হোসেন। সিনেমাটি উৎসর্গ করা হয়েছে তাকে।

হিমেল আশরাফ বলেন, আমরা চেষ্টা করেছি বিদেশি কোনো সিনেমা থেকে অনুপ্রাণিত না হয়ে নিজেদের গল্পে নিজেদের ছবি নির্মাণের। নাট্যকার ফারুক হোসেন ভাই যে গল্প তৈরি করেছেন সত্যি অসাধারণ। আজকে তার কথা খুব মনে পড়ছে। তিনি থাকলে ভালো লাগতো। এই ছবিটি দর্শক নিজেদের সঙ্গে রিলেট করতে পারবেন। মনে হবে এই তো এটা আমাদের গল্প। এ ধরণের ছবি আজকাল খুব একটা তৈরি হয়না। তবে আমার বিশ্বাস দর্শকরা ছবিটি দেখে হতাশ হবেন না।

আঁচল বলেন, প্রায় ৯ মাস পর বড় পর্দায় আসছি। জানেন ছবির শুটিংয়ের সময় থেকেই খুব আলোচনায় ছিল। সম্প্রতি ছবির ট্রেইলার প্রকাশের পর অনেকের কাছে থেকে ফোন পেয়েছি। তারা ছবিটি দেখার ব্যাপারে আগ্রহী। গ্রামীণ প্রেক্ষাপটের গল্পে আমার ও বাপ্পীর অন্যরকম এক রসায়ন দর্শক দেখতে পাবেন।

বাপ্পী বলেন, আমার স্বপ্নের ছবি 'সুলতানা বিবিয়ানা'। এতোদিন দর্শক আমাকে যেভাবে দেখেছেন তার ঠিক উল্টোভাবে পরিচালক আমাকে উপস্থাপন করেছেন। সত্যি বলতে এই ছবির জন্য অনেক শ্রম দিয়েছি। পরিচালক যে স্বপ্ন নিয়ে ছবি তৈরি শুরু করেছিলেন তার স্বপ্নের একজন সঙ্গী হিসেবেই কাজটি করেছি। হ্যাঁ এখন মনে হচ্ছে সত্যি আমরা একটি ভালো ছবি দর্শকদের উপহার দিতে পেরেছি।   

আরশাদ আদনান বলেন, সম্পূর্ণ মৌলিক গল্পের ছবি এটি। আমি নিজে ছবিটি দেখেছি এক কথায় প্রযোজক হিসেবে আমি সন্তুষ্ট। নিজেদের গল্প, নিজেদের শিল্পী, নিজেদের টেকনিশিয়ান নিয়ে ছবিটি তৈরি করেছি। এমনকি ছবির ক্লালার করতে আমরা বিদেশে যাইনি। দর্শকদের উদ্দেশে একটা কথাই বলবো এটি দেশীয় ছবি, আপনাদের ছবি। তাই সবাই হলে গিয়ে ছবিটি দেখবেন। শুধু আমার ছবি না প্রেক্ষাগৃহে দেশীয় ছবি উপভোগ করুন। আমাদের চলচ্চিত্র শিল্পকে বাঁচান, দেশীয় সংস্কৃতি রক্ষায় ভূমিকা রাখুন।

এইচএম      

 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়