• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

গাজীপুর নির্বাচন কবে, জানা যাবে রোববার

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১০ মে ২০১৮, ১৯:০৭ | আপডেট : ১০ মে ২০১৮, ২২:৩৬
আগামী ১৫ মে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে নির্বাচন করা সম্ভব হবে না। তবে ১৩ মে রোববার কমিশনে সভা আছে। ওইদিন নির্বাচনের ঠিক করা হবে।

বললেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। 

আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে বৃহস্পতিবার বিকেলে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ তথ্য জানান।

 তিনি বলেন, নতুন করে কোনও তফসিলের প্রয়োজন হবে না। কেবল ভোটের তারিখ নির্ধারণ করা হবে।

তফসিল অনুযায়ী আগামী ১৫ মে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে ভোট গ্রহণের দিন ছিল। কিন্তু, এক রিট আবেদনের পর হাইকোর্ট এই নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করেন।

পরে এখানকার আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম, বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার এবং নির্বাচন কমিশন (ইসি) এই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেন।

বৃহস্পতিবার সেই তিনটি আপিলের শুনানি শেষে উচ্চ আদালত হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করে আগামী ২৮ জুনের মধ্যে ইসিকে নির্বাচন করার আদেশ দিয়েছেন।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন তিন মাস স্থগিত করে হাইকোর্টের দেয়া আদেশের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ-বিএনপির দুই মেয়র প্রার্থী ও নির্বাচন কমিশনের (ইসি) করা আপিল আবেদনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন আদালত।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে তিন পক্ষের আপিল শুনানি শুরু হয়।

৬ মে সীমানা-সংক্রান্ত জটিলতার কারণে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই নির্বাচন স্থগিতাদেশ দেন।

পরদিন ৭ মে নির্বাচন স্থগিতের বিরুদ্ধে বিএনপির প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার ও ৮ মে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদন করেন। সর্বশেষ গতকাল বুধবার আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পক্ষে আবেদন করা হয়।

সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছয়টি মৌজা গাজীপুর সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এবিএম আজহারুল ইসলাম সুরুজ হাইকোর্টে গেল রোববার রিট করেন।

রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রোববার (৬ মে) হাইকোর্টের বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদ সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

৫৭টি সাধারণ ও ১৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত গাজীপুর সিটি করপোরেশন (জিসিসি)। সেখানে ভোটার সংখ্যা ১১ লাখ ৬৪ হাজার ৪২৫ জন।

১৫ মে সেখানে মেয়র, সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া কথা ছিল। নির্বাচন উপলক্ষে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত ছিলেন প্রার্থীরা।

৪ মার্চ সিটি করপোরেশনের সীমানা নিয়ে গেজেট জারি করা হয়। সেখানে শিমুলিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ বড়বাড়ি, ডোমনা, শিবরামপুর, পশ্চিম পানিশাইল, দক্ষিণ পানিশাইল ও ডোমনাগকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

এসজে/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়