• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

আর্থিক ক্ষতি আদায়ে বিসিকের বিরুদ্ধে মামলার ঘোষণা

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৫ এপ্রিল ২০১৭, ১৭:৫৮
গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির সংযোগ বিছিন্ন করায় ট্যানারির উৎপাদন বন্ধ রয়েছে। ফলে যত ধরনের ক্ষতি হচ্ছে তা বিসিককে দিতে হবে। এ বিষয়ে কমিটিও গঠন করা হয়েছে। শিগগিরই বিসিকের বিরুদ্ধে মামলাও করা হবে।

বললেন বাংলাদেশ ফিনিশ লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ।

শনিবার রাজধানীর ধানমন্ডির একটি কমিউনিটি সেন্টারে চামড়া শিল্প রক্ষা ঐক্য পরিষদের এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ ঘোষণা দেন। এসময় বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শাহিন আহমেদসহ সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় ঐক্য পরিষদ সাভারের চামড়া শিল্পনগরীতে গ্যাস-বিদ্যুতের সংযোগ দেয়াসহ ৯ দফা দাবি আদায়ে নানা কর্মসূচির ঘোষণা দেন। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ১৭ এপ্রিল বাংলাদেশ হাইড অ্যান্ড স্কিন মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের ও হাইড অ্যান্ড স্কিন রিটেইল ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে মতবিনিময় সভা, ১৮ এপ্রিল ট্যানারি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের উদ্যোগে ঢাকা ট্যানারি মোড়ে সকাল ১০টায় সমাবেশ।

এছাড়া ২০ এপ্রিল লেদার কেমিক্যাল ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি ও কেমিক্যাল ইম্পোর্টার্স অ্যান্ড মার্চেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে মতবিনিময় সভা, ২২ এপ্রিল ঢাকা ট্যানারি মোড়ে সকাল ১০টায় মৌন মিছিল, ২৭ এপ্রিল চামড়া শিল্প রক্ষা ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সকাল ১০টায় মিট দ্য প্রেস এবং ২৯ এপ্রিল সকাল ১০টায় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন।

গেল ১২ এপ্রিল হাজারীবাগ ট্যানারি মোড় থেকে কালো পতাকা মিছিলকালে নেতারা জানায় ১৫ দিনের মধ্যে সাভারের চামড়া শিল্প নগরীতে গ্যাস-বিদ্যুৎ সংযোগ না দিলে বিসিক ঘেরাও করবে তারা।

এদিকে ১৫ দফা দাবির মধ্যে প্রথমটিই হলো- ২০০৩ সালের সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী সাভারের চামড়া শিল্প নগরের জমির মালিকানা দ্রুত বুঝিয়ে দেয়া। বাকি দাবিগুলো শিল্পনগরে আন্তর্জাতিকমানের কেন্দ্রীয় বর্জ্য পরিশোধনাগার (সিইটিপি), ক্রোক রিকভারি ইউনিট ও ডাম্পিং ইয়ার্ড নির্মাণ, সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ১৫ দিনের মধ্যে শিল্পনগরে গ্যাস-বিদ্যুৎ নিশ্চিত করা, শ্রমিকদের আবাসন ও চামড়ার সংযোগ শিল্পকে জমি দেয়া, বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশনের (বিসিক) অব্যবস্থাপনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত, ট্যানারি মালিকদের বিদ্যমান ঋণ ব্লক করা ও সুদ মওকুফ করা এবং হাজারীবাগের জমিতে নকশা ও প্ল্যান পাসের ওপর রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া।

৮ এপ্রিল আদালতের নির্দেশে হাজারীবাগের সকল ট্যানারির গ্যাস ও বিদ্যুৎলাইন বিচ্ছিন্ন করা হয়।

শিগগিরই হাজারীবাগে থাকা ১৫৪টি ট্যানারি ১৯৯ একর জমিতে গড়ে উঠা চামড়া শিল্প নগরীতে যাওয়ার তাগদা দেয় শিল্প মন্ত্র্যণালয়।  

এমসি/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়