• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

বাণিজ্যমেলায় সেলফি’র হিড়িক

মিথুন চৌধুরী
|  ১০ জানুয়ারি ২০১৭, ২১:১৭ | আপডেট : ১০ জানুয়ারি ২০১৭, ২১:৫৬
প্রযুক্তির কল্যাণে এখন প্রায় সবার হাতেই স্মার্টফোন। আর স্মার্টফোন মানেই তো একটা সেলফি হয়ে যাক। বাণিজ্যমেলা জমে ওঠার সঙ্গে যেমন বাড়ছে ক্রেতাসমাগম, তেমনি বাড়ছে সেলফির পরিমাণ। মেলার আবহ আর রঙিণ সাজের মাঝে ক্রেতা-দর্শনার্থীরা মোটেই ভুল করছেন না সেলফি তুলতে।

আগে ছবি তুলতে বেশি দেখা গেলেও এবার সেলফি তোলার প্রতিই মনোযোগ ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের। কেউ একা অথবা কেউ বন্ধুবান্ধব কিংবা আত্বীয়-স্বজনকে নিয়ে নানা ঢঙে তুলে নিচ্ছেন সেলফি। অনেকে দীর্ঘদিন পর দেখা বন্ধুর সঙ্গে সেলফিতে ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন সুখ, আনন্দ। শুধু ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা নয়, স্টলে বিক্রয়কর্মী; আইনশৃঙ্খলাবাহিনী সবাই রঙিন আলোতে তুলে নিচ্ছেন সেলফি।

মঙ্গলবার বাণিজ্যমেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায়।

বাণিজ্যমেলায় ক্রেতাদের চেয়ে দর্শনার্থীর সংখ্যা বেশি। ছুটির দিন ছাড়া বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে বেচাকেনার পরিমাণ বেশি না হলেও খাবারের দোকানগুলোতে ভিড় রয়েছে বেশ। দর্শনার্থীদের মধ্যে বেশির ভাগই শিক্ষার্থী। আর সকাল না হতেই মেলায় শিক্ষার্থীদের আনাগোনা বাড়তে থাকে। এসব শিক্ষার্থীরা দল বেধে সেলফি আর দুষ্টামিতে মাতিয়ে রাখে প্রাঙ্গণ।

সেলফি তুলতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান নিদিষ্ট কর্ণারও তৈরি করেছে। আবার বাণিজ্যমেলায় অনেক প্রতিষ্ঠান খুব কম দামে স্মার্টফোন দিচ্ছে। এর মধ্যে সেলফিমুড ভালো মোবাইলগুলোর চাহিদাই বেশি বলে বিভিন্ন কোম্পানির বিক্রয়কর্মীরা জানায়।

রাজধানীর একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা হয় মেলা প্রাঙ্গণে। তারা সবাই অনার্স ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী। মঙ্গলবার তারা প্লান করে মেলায় ঘুরতে এসেছে। ঘুরতে এসেই মুল গেটে কয়েকটা ছবি তুলেছে তারা। মেলায় ঘুরে জমকালো প্যাভেলিয়নের সামনে অথবা সুন্দর স্থানে সেলফি আর ছবি তুলেছে এরা।

বৃদ্ধ বাবা-মাকে নিয়ে বেড়াতে এসেছে যাত্রাবাড়ী থেকে এক দম্পতি। হাতবোঝাই কেনাকাটা, তার মাঝেও সেলফি তুলে নেয় তারা।

ছোট সোনামনি তানিয়ার সঙ্গে সেলফি তুলছে তার ভাই জনি। তানিয়া এ প্রথম মেলায় ঘুরতে এসেছে। এদিন সে মেলার শিশুপার্ক ও বিভিন্ন সুন্দর জায়গায় ঘুরতে যাবে। আর দিনটির স্মৃতি ধরে রাখতে তুলবে ছবি।

সবাই হাসতে হাসতে লে লে সেলফি লে বলতে বলতে বেশ কিছুক্ষণ ধরে একটি গ্রুপ তা তুলছে বাণিজ্যমেলার বিভিন্ন প্যাভেলিয়নের সামনে। মেলায় ঘুরা ও সেলফির বিষয়ে জানতে চাইলে গ্রুপের কয়েকজন বলে আমরা সবাই বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধু। অনেকদিন পর আমাদের সবাই এক হয়েছি। নগর জীবনের ব্যস্ততা ও অনেকে ঢাকার বাইরে চাকুরি করায় আমরা এক হতে পারি না। তবুও আমরা কয়েকবন্ধু এক হয়েছি। মেলায় ঘুরছি সকাল থেকে। ঘুরতে ঘুরতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অতীতটা মনে পড়ে যাচ্ছে। আমরা হারিয়ে গেছি অতীতে। তাই বন্ধুরা মিলে মজা করে সেলফি তুলছি। যা আমাদের স্মৃতিতে জমা থাকবে। আর পরে ফেসবুকে দিয়ে সব বন্ধুকে ট্যাগ করে দেবো। যাতে আমাদের এ আনন্দের ভাগিদার অন্য বন্ধুরাও হয়।

২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে সেলফি শব্দটিকে বছরের সেরা শব্দ বলে স্বীকৃতি দেয় অক্সফোর্ড ইংলিশ ডিকশনারি। কীভাবে ভালো সেলফি তোলা যায়, সেটা জানতে প্রচুর মানুষ প্রতিদিন অনলাইনে ঢু মারেন। এ নিয়ে নানা ওয়েবসাইট বিভিন্ন সমাধানও দিয়ে থাকে।

সমীক্ষা বলছে, ১৯৮০ সালের পরে যাদের জন্ম তারা গোটা জীবনে ২৫ হাজার সেলফি তুলবেন। বহু মানুষ বছরে ৫৪ ঘণ্টা অর্থাৎ দু’দিনেরও বেশি সময় সেলফি তুলে খরচ করেন। সব থেকে বেশি সেলফি পোস্ট করা হয় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ফেসবুকে। অধিকাংশ মানুষই সেলফি পোস্ট করার আগে সেটি এডিট করে নেন। তবে সেলফি ব্যবহারে কিছুটা খারাপ প্রতিক্রিয়াও রয়েছে। এটি তুলতে গিয়ে অনেকে হারাচ্ছে প্রাণ। পাশাপাশি বাড়ছে সামাজিক অবক্ষয়।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে ১ জানুয়ারি শুরু হওয়া ২২তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা চলবে আসছে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। মেলা চলে প্রতিদিন সকাল ১০টা-রাত ৮টা পর্যন্ত। মেলায় প্রবেশের টিকিটমূল্য বড়দের জন্য ২০ টাকা এবং ছোটদের ১০ টাকা। এছাড়া অনলাইনেও মেলে টিকিট।

এমসি/ডিএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়