দুই মাস মিলে রপ্তানি আয় বেড়েছে

প্রকাশ | ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৩২ | আপডেট: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৫১

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

রপ্তানি আয়ে চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইতে সুখবর এসেছে। তবে দ্বিতীয় মাসেই হোঁচট খেয়েছে দেশ। জুলাইয়ে পণ্য রপ্তানি করে গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ২০ শতাংশ বেশি আয় হলেও দ্বিতীয় মাসে প্রথম মাসের তুলনায় কমেছে প্রায় ১২ শতাংশ। তবে দুই মাস মিলে আয় বেশি হয়েছে। 

মঙ্গলবার রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে আসে।

এতে দেখা যায়, চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে (জুলাই-আগস্ট) বিভিন্ন পণ্য রপ্তানি করে বাংলাদেশ ৬৭৯ কোটি ৫০ লাখ ডলার আয় করেছে। যা গত বছরের একই সময় থেকে প্রায় আড়াই শতাংশ বেশি।

ইবিপির তথ্য মতে, প্রথম মাস জুলাইয়ে আয় হয় ৩৫৮ কোটি ১৫ লাখ ডলার। আগস্টে তা দাঁড়িয়েছে ৩২১ কোটি ৩৫ লাখ ডলারে।

তবে দুই মাস মিলে আয় বেড়েছে। জুলাই-আগস্ট সময়ে রপ্তানি হয়েছে ৬৭৯ কোটি ৫০ লাখ ডলারের পণ্য। গত বছরের একই সময়ে যা ছিল ৬৬২ কোটি ৮৬ লাখ ডলার।
------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : শেয়ারবাজারে আধা ঘণ্টা বেশি লেনদেন হবে বুধবার
------------------------------------------------------------------

ইপিবির তথ্যে দেখা যায়, জুলাই-আগস্ট সময়ে মোট রপ্তানি আয়ের প্রায় ৮৫ শতাংশ এসেছে তৈরি পোশাক থেকে।

তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএর সহসভাপতি ফারুক হাসান বলেন, ঈদের কারণে আগস্টের শেষ ১০ দিন অধিকাংশ কারখানা বন্ধ ছিল। ফলে রপ্তানি আয়ে তার প্রভাব পড়তে পারে। সে কারণে আগস্টে রপ্তানি আয় কিছুটা কমেছে। প্রতি বছর দুই ঈদের ছুটিতে এমনটি হয়।

তবে অর্থবছরের বাকি মাসগুলোতে আয় বাড়বে বলে আশা করেন তিনি।

জুলাই-আগস্ট সময়ে পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানি কমেছে ১৫ দশমিক ৫৭ শতাংশ। হিমায়িত মাছ রপ্তানি  কমেছে ৩১ দশমিক ২৩ শতাংশ। চামড়া এবং চামড়াজাত পণ্য রপ্তানি কমেছে ২৬ দশমিক ২৬ শতাংশ। চা রপ্তানি কমেছে ৯৪ শতাংশ।

তবে স্পেশালাইজড টেক্সটাইল রপ্তানি বেড়েছে ২৪ শতাংশ। ওষুধ রপ্তানি বেড়েছে ১৯ শতাংশ।

আরও পড়ুন  :

এসআর