• ঢাকা সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

মরিচের ঝাল দ্বিগুণ, পেঁয়াজে বাড়ল ২০ টাকা

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৭ জুলাই ২০১৮, ১৪:৫৯ | আপডেট : ০৭ জুলাই ২০১৮, ১৫:১৯
এক সপ্তাহের ব্যবধানে বাজারে কাঁচা মরিচের দাম এখন দ্বিগুণ। সেই সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে পেঁয়াজের ঝাঁঝ। সুতরাং ঝাল করে সুস্বাদু তরকারি খেতে হলে কাঁচা মরিচের দিতে হবে খুচরা মূল্যে ১২০ টাকা। গত সপ্তাহে বাজারে মরিচের দাম ছিলও ৬০ টাকা কেজি। আর পেয়াজের ঝাঁঝ পেতে হলে প্রতি কেজিতে ১০ থেকে ১৫ টাকা বেশি দিতে হবে।

শনিবার সকালে কাওরান বাজার ঘুরে দেখা যায়, মানিকগঞ্জের ঝাল ‘বিন্দু মরিচ’ ১২০ টাকা। নওগাঁ দেশি মরিচ ১০০ টাকা কেজি।

মরিচ ব্যবসায়ী আমিনুল আরটিভি অনলাইনকে বলেন, আষাঢ় মাসে মরিচ গাছের ফুল ঝড়ে যায়। এছাড়া বন্যার প্রভাবে অনেক গাছ নষ্ট হয়ে যায়। সেকারণে মরিচের আমদানি কম থাকায় এর দাম বাড়তি।

আর  গত বৃহস্পতিবার বড় দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৫৫ টাকা, মাঝারি দেশি পেঁয়াজ ৫০ টাকা এবং বড় ভারতীয় পেঁয়াজ ৪০ টাকা কেজিতে বিক্রি করতে দেখা যায়। বিক্রেতারা জানান, ঈদের পরে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম কেজিতে ১০-১৫ টাকা বেড়েছে। অন্যদিকে দেশি পেঁয়াজের দর বেড়েছে কেজিতে ৫-১০ টাকা। কাওরান বাজারের পেঁয়াজ বিক্রেতা মামুন হোসেন আরটিভি অনলাইনকে বলেন, বাজারে দেশি পেঁয়াজের সরবরাহ কম। ভারতীয় পেঁয়াজের বাজারও আগের চেয়ে চড়া। এ দুইয়ে মিলে পেঁয়াজের দর বেড়েছে। তবে চীনা বড় রসুনের দর কেজিতে ২০ টাকা কমে ৮০ টাকায় নেমেছে।

মরিচের দামের সঙ্গে সঙ্গে ডিমের দামও কিছুটা বাড়তি । গত সপ্তাহের তুলনায় প্রতি ডজনে ডিমের দাম বেড়েছে ১৫ টাকা। এখন প্রতি ডজন ডিমের দাম ৯৫ টাকা। তিন দিন আগেও প্রতি ডজন ডিমের দাম ছিল ৯০ টাকা। মাছের বাজার আগের মতোই চড়া।

তবে ঈদের পর বয়লার মুরগির দাম বাড়তি থাকলেও এখন কিছুটা কমেছে । কেজিতে ১৮০ টাকা দাম কমে এখন ১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বয়লার মুরগি। মুরগি ব্যবসায়ীরা বলছেন এই দাম স্থিতিশীল থাকবে আগামী ঈদ-উল-আজহা পর্যন্ত। গরুর মাংসেও ঈদের প্রভাব নেই।

গত এক সপ্তাহে সবজির বাজারও স্থিতিশীল ছিল বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। কোনও  সবজির দাম এখন বাড়তি নেই। পটলের খুচরা মূল্য ৩০, বেগুন ৩২, করলা ২২, ঢেঁড়স ৩৬ এবং ঝিঙ্গা ২৫ টাকা।

আরসি/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়