• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

সমালোচনার পরও ফেসবুকের শেয়ার দর সর্বকালের সর্বোচ্চ

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ২১ জুন ২০১৮, ০৯:৩৭ | আপডেট : ২১ জুন ২০১৮, ১৬:২৪
চলতি বছরটা ফেসবুকের জন্য কঠিন একটা বছর হয়ে রইলো। ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারি, ফেসবুক ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে রাশিয়ার অবৈধ প্রভাব এবং ব্যবহারকারী কমে যাওয়া- এইসব বড় সমস্যায় ভুগেছে বিলিয়ন ডলারের এ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কোম্পানিটি। তবে কথায় আছে, শেষ ভাল যার, সব ভাল তার। এতো সব বাধা বিপত্তি আর সমালোচনার পরও তাই শেষ হাসিটি হাসলো মার্ক জাকারবার্গই।

গতকাল বৃহস্পতিবার ফেসবুকের শেয়ার দর বেড়ে দাঁড়ায় শেয়ার প্রতি ২০০ ডলারের উপরে। ১৪ শতাংশ বেড়ে ফেসবুকের শেয়ার দর হয়ে যায় সর্বকালের সর্বোচ্চ। শেয়ার দর বাড়ার ফলে ফেসবুকের বাজার দর গিয়ে দাঁড়ালো ৫৮৫ বিলিয়ন ডলারে।

-----------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : ঈদের পর কমলো স্বর্ণের দাম
-----------------------------------------------------------

ফোর্বস ও ব্লুমবার্গের পৃথিবীর সবচেয়ে ধনীদের তালিকায় ফেসবুক সিইও এবং সহ প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ এখন ৭৫ বিলিয়ন ডলারের মালিক।

এতগুলো কেলেঙ্কারির পরও ফেসবুকের শেয়ার বাজারে কেন বড় কোনও ধস পড়েনি কেন? বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, ধস না পড়ার কারণ হচ্ছে, ওয়াল স্ট্রিটের বিজ্ঞাপন বিক্রি এবং মুনাফা প্রবৃদ্ধির দিকে বিশেষ নজর দেয়া।

আগামী জুলাই মাসের শেষ দিকে ফেসবুক তাদের বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের ফলাফল প্রকাশ করবে। বিশ্লেষকরা এই সময়ের মধ্যে গেলো বছরের চেয়ে ফেসবুকের আয় ৪০ শতাংশ এবং শেয়ার দর ৩০ শতাংশ বাড়ার আশা করছেন।

তবে এটা ঠিক, তরুণ প্রজন্মের ব্যবহারকারীদের কাছে আবেদন হারাচ্ছে ফেসবুক। পিউ রিসার্চ সেন্টারের নতুন এক প্রতিবেদনে জানা গেছে, আমেরিকান তরুণরা এখন ফেসবুকের চেয়ে ইউটিউব এবং স্ন্যাপচ্যাটে বেশি ঝুঁকছেন।

তবে ফেসবুক মালিকানাধীন ইনস্টাগ্রাম এখনো তরুণদের কাছে অনেক জনপ্রিয়। বুধবার ইনস্ট্রাগ্রাম নিজেদের ১০০ কোটি বৈশ্বিক ব্যবহারকারী অতিক্রমের ঘোষণা দিল।

শেয়ারদর বাড়ার আরও কিছু কারণ খুঁজে বেরে করেছেন বাজার বিশ্লেষকরা। এতো বিতর্কের পরও কোম্পানিটি গত দুই মাসে নিজেদের আয় বাড়ানোর জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এই চেষ্টার ধারাবাহিকতায়ই কোম্পানির শেয়ারদর বেড়েছে। এছাড়াও এটা ভুললে চলবে না, ফেসবুক এখনো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের হর্তাকর্তা। কোম্পানিটি ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ এবং ম্যাসেঞ্জারের মতো জনপ্রিয় সব অ্যাপের মাধ্যমে বিজ্ঞাপনদাতাদের আকর্ষণ করে যাচ্ছে। গুগল এবং ইউটিউবের মতো ফেসবুকও তাই বিজ্ঞাপনদাতাদের কাছে খুবই আকর্ষণীয় মাধ্যম। 

 

আরও পড়ুন :

মানবসম্পদ উন্নয়নে ৩৪ কোটি টাকা দিচ্ছে জাপান

চুরি হওয়া সঞ্চয়পত্র লেনদেন না করার নির্দেশ

কেএইচ/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়