• ঢাকা বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮ | ১২ বৈশাখ ১৪২৫

দেশের বাণিজ্য ঘাটতি বেড়ে দ্বিগুণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
|  ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৮:৩৫ | আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৯:১০
আমদানি খাতে ব্যয় বাড়তে থাকায় বাইরের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্যে ঘাটতি বেড়েই চলেছে। চলতি অর্থবছরের (২০১৭-১৮) জুলাই থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৮ মাসে আমদানি ও রপ্তানির ব্যবধান বা বাণিজ্য ঘাটতি হয়েছে ১ হাজার ১৭৩ কোটি ডলার।

গত অর্থবছরের একই সময়ে যা ছিল ৬০৯ কোটি ডলার। অর্থাৎ গত  অর্থবছরের একই সময়ের চেয়ে বর্তমানে বাণিজ্য ঘাটতি প্রায় দ্বিগুণ।

বাংলাদেশ ব্যাংক বৈদেশিক লেনদেন ভারসাম্যের সবশেষ হালনাগাদ যে তথ্য প্রকাশ করেছে তাতে দেখা যায়, চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের ফেব্রুয়ারি শেষে ইপিজেডসহ রপ্তানি খাতে বাংলাদেশ আয় করেছে দুই হাজার ৪০৮ কোটি ৮০ লাখ ডলার। এর বিপরীতে আমদানি বাবদ ব্যয় হয়েছে ৩ হাজার ৫৮২ কোটি ডলার।

এ হিসাবে বাণিজ্য ঘাটতি দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১৭৩ কোটি ২০ ডলার।

গত ৩০ জুন শেষ হওয়া ২০১৬-১৭ অর্থবছরে বিভিন্ন পণ্য আমদানিতে বাংলাদেশ মোট চার হাজার ৩৪৯ কোটি ১০ লাখ টাকা ব্যয় করেছে।

গত অর্থবছর শেষে ঘাটতির পরিমাণ ছিল ৯৪৭ কোটি ২০ লাখ (৯ দশমিক ৪৭ বিলিয়ন) ডলার, যা ছিল সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগের ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ ছিল ৬৪৬ কোটি ডলার।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : ইয়ামাহার স্পন্সরে শাবিপ্রবিতে স্থাপত্যে বৈশাখ
--------------------------------------------------------

তার আগে ২০১০-১১ অর্থবছরে পণ্য বাণিজ্যে বাংলাদেশের ঘাটতির পরিমাণ ছিল ৯৯৩ কোটি ৫০ লাখ ডলার; সেটাই দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ বাণিজ্য ঘাটতি।

বাংলাদেশের অর্থনীতিতে যেসব চ্যালেঞ্জের কথা উন্নয়ন সহযোগীরা বলছেন, তার মধ্যে বৈদেশিক লেনদেনে ঘাটতি বেড়ে যাওয়া অন্যতম।

অর্থ বিশ্লেষকরা বলছেন, পদ্মা সেতু, মেট্রোরেলসহ বেশ কিছু বড় প্রকল্পের কাজ চলছে। এসব প্রকল্পের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম আমদানিতে অনেক খরচ হচ্ছে। এছাড়া বিশ্ব বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যাওয়ার কারণেও ব্যয় বেড়েছে। গত বছর বন্যায় উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় চাল আমদানি করতে হচ্ছে। কিন্তু সে তুলনায় রপ্তানি আয় না বাড়ায় বাণিজ্য ঘাটতি বেড়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন মনে করেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের হাতে ৩৩ বিলিয়ন ডলারের বেশি রিজার্ভ রয়েছে। ফলে বাণিজ্য ঘাটতি নিয়ে বিচলিত হওয়ার কিছু নেই।

তিনি বলেন, আমদানি বাড়ার ইতিবাচক দিক হচ্ছে বিনিয়োগ বাড়া। গত কয়েক বছরে বাংলাদেশের অনেক উন্নয়ন হয়েছে। আমদানি বাড়ার মাধ্যমে তা আরও অগ্রসর হবে।

ঘাটতি বেড়েছে সেবা খাতেও

পণ্য বাণিজ্যের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ঘাটতি বেড়েছে সেবা খাতেও। ফেব্রুয়ারি শেষে সেবা খাতে ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২৯৫ কোটি ডলার। যা গত বছরের একই সময়ে ছিল ২১১ কোটি ডলার।

২০১৬-১৭ অর্থবছরের সেবা বাণিজ্যে ঘাটতির পরিমাণ ছিল ৩২৮ কোটি ৪০ লাখ ডলার। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ঘাটতি ছিল ২৭০ কোটি ৮০ লাখ ডলার।

মূলত বীমা, ভ্রমণ ইত্যাদি খাতের আয়-ব্যয় হিসাব করে সেবা খাতের বাণিজ্য পরিমাপ করা হয়।

চাঙা এফডিআই

তবে বাণিজ্য ঘাটতিতে রেকর্ডের পর রেকর্ড হলেও বেড়েছে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ (এফডিআই)। বাংলাদেশ ব্যাংকের সবশেষ হিসাব বলছে, ৮ মাসে মোট ২২৭ কোটি ডলারের এফডিআই পেয়েছে বাংলাদেশ। গেলো বছরের একই সময়ের চেয়ে যা ১০ কোটি ডলার বেশি।

গত অর্থবছরের একই সময়ে এ ধরনের মোট বিনিয়োগ ছিল ২১৭ কোটি ডলার।

আরও পড়ুন :

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়