• ঢাকা রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

বিতর্কিত ইউটিউব চ্যানেল থেকে সরে যাচ্ছে বিজ্ঞাপনদাতারা!

আরটিভি অনলাইন ডেস্ক
|  ০৫ মার্চ ২০১৮, ১৩:৫৭ | আপডেট : ০৫ মার্চ ২০১৮, ১৫:২১
বিতর্কিত ইউটিউব চ্যানেল থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে বিজ্ঞাপনদাতারা। এমন কথা এখন ভাসছে সিএনএন, সিএনবিসি, ডেইলি মেইলের মতো আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলোতে।

সিএনএন বলছে, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক কিছু বড় বড় কোম্পানি এরইমধ্যে চরম ডানপন্থী ও বিতর্কিত ওয়েবসাইট ইনফোওয়ারস এবং তার প্রতিষ্ঠাতা অ্যালেক্স জোনস থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে।

অ্যালেক্স জোনস তার ইউটিউব চ্যানেলে বিতর্কিত ভিডিও প্রকাশের জন্য বিখ্যাত। এমনকি এর মাধ্যমে ভুয়া তথ্য ছড়ানো হয় বলেও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার হাই স্কুলে গুলি চালিয়ে ১৭ জনকে হত্যার পর সম্প্রতি চ্যানেলটি একটি ভিডিও পোস্ট করে। যেখানে প্রতিবাদকারী শিক্ষার্থীদের ভাড়া করা লোক বলে দাবি করা হয়।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: ভিয়েতনামের সঙ্গে ৩ সমঝোতা স্মারকে সই
--------------------------------------------------------

ভিডিওটি আপলোডের পর গেলো সপ্তাহে ইউটিউব জোনস ও তার সাইটটিকে তাদের গাইডলাইন লঙ্ঘন করেছে বলে সতর্ক করে। এখন ইউটিউব ও জোনসের চ্যানেল আবারও স্পটলাইটে চলে এসেছে।

সিএনএনের অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে, নাইকি, এসার, ফক্স, আলিবাবা, মজিলার মতো সংস্থা ও কোম্পানিগুলো ষড়যন্ত্রতত্ত্বের জন্য খ্যাত অ্যালেক্স জোনসের ইউটিউব চ্যানেলে বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে। এমনকি সেখানে রোহিঙ্গাদের সাহায্যার্থে অর্থ চেয়ে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরেরও বিজ্ঞাপন রয়েছে।

এগুলোর মধ্যে বেশকিছু কোম্পানি ইনফোওয়ারস থেকে বিজ্ঞাপন সরিয়ে নিয়েছে। কোম্পানিগুলো এ ব্যাপারে তাৎক্ষণিক মন্তব্য দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। তবে আলিবাবা বলেছে, চ্যানেলটিতে বিজ্ঞাপনের বিষয়ে তারা সচেতন ছিল না।

এদিকে অ্যালেক্স জোনস তার টুইটারে অভিযোগ তুলেছেন, ইউটিউব তার ভিডিও জব্দ করেছে। তাকে বলা হয়েছে, ইউটিউব তার ৩৩ হাজার ভিডিও মুছে দেবে। এ কারণে তিনি নতুন একটি চ্যানেলও খুলেছেন।

তবে ইউটিউব এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলছে, ইউটিউব থেকে ভিডিও মুছে দেয়ার কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই।

আরও পড়ুন:

এসআর/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়