ভ্যাট অনলাইনে ব্যয় বেড়েছে ১৩৯ কোটি টাকা

প্রকাশ | ২৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১২:৩৯ | আপডেট: ২৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১২:৪৬

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২ বাস্তবায়ন (ভ্যাট অনলাইন) ২য় সংশোধিত প্রকল্প মেয়াদ ২০২০ সাল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। একই সঙ্গে এ প্রকল্পের ব্যয় বেড়েছে ১৩৮ কোটি ৫৪ লাখ টাকা।

রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সবশেষ সভায় ২য় সংশোধিত প্রকল্পটি অনুমোদন দেয়া হয়।  সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

২০১৭-১৮ অর্থবছর নতুন ভ্যাট আইন ও ভ্যাট অনলাইন প্রকল্প বাস্তবায়ন এবং ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে প্রকল্পটি শেষ হবার কথা ছিল।  কিন্তু ব্যবসায়ীরা ভ্যাট হারসহ বেশ কিছু দাবি তুললে তা দুই বছরের জন্য স্থগিত করে সরকার।

একনেকের এ সভায় ১৪টি প্রকল্প অনুমোদিত হয়।  এর মধ্যে ১২ নম্বর প্রকল্পটি হচ্ছে ২য় সংশোধিত মূল্য সংযোজন ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২ (ভ্যাট অনলাইন)।  প্রকল্প মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে ২০২০ সাল পর্যন্ত।

এর আগে প্রকল্পটির মেয়াদ ছিল ২০১৮ সাল পর্যন্ত।  সংশোধিত প্রকল্প ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৯০ কোটি ১৩ লাখ টাকা।  এরমধ্যে সরকারি অর্থায়ন ২৪০ কোটি ৩৯ লাখ টাকা।  এবং বাকি ৪৪৯ কোটি ৭৪ লাখ টাকা দেবে বিশ্বব্যাংক।

২০১৩ সালের ৮ অক্টোবর একনেক সভায় অনুমোদিত প্রকল্প ব্যয় ছিল ৫৫১ কোটি ৫৯ লাখ টাকা।  যার মধ্যে ১০১ কোটি ৮৪ লাখ টাকা সরকারি অর্থায়ন ও ৪৪৯ কোটি ৭৪ লাখ টাকা বিশ্বব্যাংক এর সাহায্য।

প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের (আইআরডি) আওতাধীন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

প্রকল্প সম্পর্কে বলা হয়, অভ্যন্তরীণ সম্পদ সংগ্রহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে এনবিআরের আধুনিকায়ন ও শক্তিশালীকরণ কার্যক্রম ইতোমধ্যে শুল্ক ও আয়কর অনুবিভাগের অটোমেশন কার্যক্রম প্রায় চূড়ান্ত হওয়ার পথে।

এরই ধারাবাহিকতায় মূসক ও সম্পূরক শুল্ক সংক্রান্ত ব্যবস্থাপনা, কম্পিউটারাইজড এবং অটোমেশন করার লক্ষ্যে প্রকল্প সাহায্য মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২ (ভ্যাট অনলাইন) প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে।

প্রকল্পটির ১ম সংশোধনের প্রস্তাব ২০১৪ সালে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় অনুমোদন দেয়। এরপর প্রকল্পের ব্যয় ২৫.১১% বৃদ্ধি ও বাস্তবায়নকাল ২০২০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধিসহ প্রকল্পটির ২য় সংশোধনের প্রস্তাব করা হয়।

আরও পড়ুন

এসআর