• ঢাকা রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

চলতি মাসে মাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ শুরু

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৬ জানুয়ারি ২০১৮, ১০:৩৪
কক্সবাজারের মাতারবাড়িতে প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ১২০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ চলতি মাসেই শুরু হবে। 

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এ তথ্য জানিয়েছেন। 

শুক্রবার নির্মাণাধীন এই আল্ট্রা সুপারক্রিটিক্যাল কোল ফায়ার্ড পাওয়ার প্রজেক্ট পরিদর্শনকালে তিনি এ কথা বলেন।

এসময় তার সঙ্গে ছিলেন সংসদ সদস্য আশিক উল্লাহ চৌধুরী, পিডিবির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ, কোল পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আবুল কাশেম, জাপানের রাষ্ট্রদূত হিরোয়াসু ইজুমি জাইকার চিপ রিপ্রেজেন্টেটিভ টাকাতুসি নিশিকাতা প্রমুখ। 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, মাতারবাড়ি বিদ্যুৎকেন্দ্র হবে উন্নয়নের অন্যতম মাইলফলক। কৃত্রিম ডিপ সি, ল্যান্ড বেসড এলএনজি টার্মিনাল, কোল টার্মিনাল প্রভৃতি এই এলাকাসহ দেশকে দ্রুত উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

নসরুল হামিদ বলেন, আগামী দিনের বাংলাদেশ হবে পরিবেশবান্ধব উন্নত বাংলাদেশ। উন্নয়নের অন্যতম নিয়ামক হচ্ছে বিদ্যুতের ব্যবহার। মাতারবাড়ির এ বিদ্যুৎকেন্দ্র এই এলাকার জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনে তাৎপর্যপূর্ণ অবদান রাখবে।

প্রতিমন্ত্রী আশা করেন, সবকিছু ঠিক থাকলে ২০২৩ সালের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ করে এই কেন্দ্রের বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা সম্ভব হবে। 

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নির্মাণাধীন এ প্রকল্পটির অর্থায়ন করেছে জাইকা। এ পর্যন্ত আর্থিক অগ্রগতি ১৩ দশমিক ৭৩ শতাংশ ও ভৌত অগ্রগতি ১৮ শতাংশ। এ প্রকল্পের আওতায় চ্যানেল ও জেটি নির্মাণ, কোল ইয়ার্ড নির্মাণ, পল্লী বিদ্যুতায়ন, টাউনশিপ নির্মাণ, পল্লী বিদ্যুতায়ন কাজের আওতায় চকোরিয়া-মাতারবাড়ি ১৩২ কেভি ট্রান্সমিশন লাইন নির্মাণ ও ১৩২/৩৩ কেভি ক্ষমতাসম্পন্ন একটি সাবস্টেশন নির্মাণ করা হবে।

সরকারের অগ্রাধিকারের মধ্যে বাস্তবায়নাধীন যে ১০টি প্রকল্প রয়েছে তার মধ্যে খরচের দিক দিয়ে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের পরই রয়েছে মাতারবাড়ির প্রকল্পটি।

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়