• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

হোলসিম কেনার খবরে হু হু করে বাড়ছে লাফার্জ

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ১২:২০
অবশেষে সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটালো লাফার্জ ও হোলসিম। বাংলাদেশ ব্যাংকের বেঁধে দেওয়া মূল্যেই হোলসিম বাংলাদেশের শতভাগ শেয়ার কিনে নিচ্ছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেড।

আজ রোববার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আর এ খবরের পর কোম্পানিটির শেয়ার দর  হু হু করে বাড়ছে। রোববার লেনদেনের মাত্র আধা ঘণ্টার মধ্যে বিক্রেতা উধাও হয়ে গেছে লাফার্জ সুরমার শেয়ারে। এতে কোম্পানির শেয়ারটি হল্টেড হয়ে মূল্য স্পর্শ করছে সার্কিট ব্রেকারে।

দুপুর ১২টার দিকেই ডিএসইতে দেখা যায়, কোম্পানিটির শেয়ার দর দেড় ঘণ্টায় ৫ টাকা ৪০ পয়সা বা ৯ দশমিক ৯৪ পয়সা বেড়ে ৫৯ টাকা ৭০ পয়সায় অবস্থান করছে।

প্রসঙ্গত, বিশ্বজুড়ে লাফার্জ-হোলসিমের একীভূত হওয়ার অংশ হিসেবে গত ডিসেম্বরে বাংলাদেশে হোলসিমকে কিনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় লাফার্জ পরিচালনা পর্ষদ।

নভেম্বরে লাফার্জ সুরমার পরিচালনা পর্ষদে সিদ্ধান্ত হয়েছিল ১১ কোটি ৭০ লাখ মার্কিন ডলার বা বাংলাদেশি মুদ্রায় (প্রতি ডলারের বিনিময় মূল্য ৮০ টাকা) ৯৩৬ কোটি টাকায় হোলসিমকে কিনে নেবে লাফার্জ। দুই কোম্পানির মধ্যে এ দামেই কেনাবেচার বনিবনা হয়েছিল।

হোলসিমের সম্পদ ও দায়-দেনার বিশেষ নিরীক্ষার পর ওই মূল্য ঠিক করা হয়েছিল। পরে বাংলাদেশ ব্যাংক হোলসিমের দাম নির্ধারণ করে দেয় প্রায় ৬ কোটি ২৫ লাখ ডলার বা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৫০৫ কোটি টাকা। তাতে দুই কোম্পানির মধ্যে নির্ধারিত দামের চেয়ে ৪৩১ কোটি টাকা দাম কমিয়ে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। কমিয়ে দেওয়া এ দামে কোম্পানি দুটির মালিকানা বদল হচ্ছে।

এর আগে ২০১৪ সালের এপ্রিলে বৈশ্বিকভাবে লাফার্জ ও হোলসিম একীভূত হওয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে। সেই অনুযায়ী, বৈশ্বিকভাবে কোম্পানি দুটির একীভূত কার্যক্রম সম্পন্ন হয়। ফলে বিশ্বের সিমেন্ট খাতে জায়ান্ট দুই কোম্পানি এক ছাতার নিচে এসে ‘লাফার্জহোলসিম’ হিসেবে যাত্রা শুরু করে। এতে করে দুই কোম্পানি মিলে হয়ে যায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় সিমেন্ট কোম্পানি।

বৈশ্বিকভাবে একীভূত হওয়ার পর বাংলাদেশেও কোম্পানি দুটি একীভূতকরণের বিষয়টি সামনে আসে।

এসআর/এমকে 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়