• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

রাজশাহী-চট্টগ্রামে আরো ২টি চামড়া শিল্পনগরী: প্রধানমন্ত্রী

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১৬ নভেম্বর ২০১৭, ১৪:০৫ | আপডেট : ১৬ নভেম্বর ২০১৭, ১৬:৩৯
রাজধানী ঢাকার বাইরে আরো দুইটি চামড়া শিল্পনগরী হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিভাগে এই চামড়া শিল্পনগরী গড়ে তোলা হবে।

আজ বৃহস্পতিবার চামড়া শিল্পের সবচেয়ে বড় ট্রেড শো লেদারটেক বাংলাদেশ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চামড়াজাত পণ্যের আন্তর্জাতিক এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, চামড়া শিল্প খাতের সামগ্রিক বিকাশের জন্য আমরা ইতোমধ্যে সাভারে পরিবেশসম্মত চামড়া শিল্পনগরী গড়ে তুলেছি।

তিনি বলেন, আমাদের আরো পরিকল্পনা আছে। আমি চিন্তা করছি, রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিভাগে নতুন দুটি  চামড়া শিল্প অঞ্চল গড়ে তুলবো। শুধু ঢাকায় করলে হবে না। পুরো বাংলাদেশে ছড়িয়ে দিতে হবে।

ছয় দশক ধরে বাংলাদেশে চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানাগুলো গড়ে উঠেছিল মূলত ঢাকার হাজারীবাগ এলাকায়।কিন্তু বুড়িগঙ্গাসহ আশপাশের এলাকার পরিবেশ রক্ষায় ওই এলাকার ট্যানারিগুলো সরিয়ে দেওয়ার দাবি ছিল।

এর ধারাবাহিকতায় ঢাকার সাভারে দেশের একমাত্র চামড়া শিল্পনগরীটি গড়ে তোলা হয়।

এর আগে গেলো ৭ নভেম্বর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে প্রথম আরো দুইটি চামড়া শিল্পনগরী গড়ে তোলার পরিকল্পনার কথা বলেন।

তিনি ওইদিন জানান, বেসরকারি উদ্যোগে এই নগরী গড়ে উঠবে। এ উদ্যোগে সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহায়তা দেয়া হবে।

চামড়াজাত পণ্যের আন্তর্জাতিক এ প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী রপ্তানিতে এ খাতের অবদানের কথা স্মরণ করে, এ শিল্পের উন্নয়নে সরকারের উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন।  

তিনি বলেন, চামড়া শিল্প অমিত সম্ভাবনাময় খাত। ইতোমধ্যে এ শিল্প দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রপ্তানিকারী খাত হিসেবে বিবেচিত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ শিল্পের বিকাশে সরকার চামড়া ব্যবসায়ীদের রেয়াত ও ঋণ সুবিধাসহ বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করছে। শিল্পটিকে এগিয়ে নেয়ার জন্য প্রয়োজনে ব্যবসায়ীদের আরও সুযোগ-সুবিধা দেবে সরকার। বিদেশিদেরও এ খাতে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান তিনি।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, চামড়া শিল্পের মাধ্যমে যেসব পণ্য তৈরি হবে তা যেন আন্তর্জাতিক মানের হয়। এটা করতে পারলে এ শিল্পের পণ্য নতুন নতুন বাজার খুঁজে পাবে। আমরা চাই আমাদের চামড়া শিল্পের আরও প্রসার ঘটাতে বিদেশিরা যেন এ দেশে বিনিয়োগ করতে এগিয়ে আসে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে কোরবানি ছাড়া প্রতিনিয়ত প্রচুর পশু জবাই হয়। এ ক্ষেত্রে যারা চামড়া ছাড়ানোর সঙ্গে যুক্ত থাকেন তাদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- চামড়াজাত পণ্য ও পাদুকা প্রস্তুতকারক এবং রপ্তানিকারকদের সংগঠন এলএফএমইএবির সভাপতি সাইফুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। এ ছাড়া ধারণকৃত বক্তব্য রাখেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটিতে আজ বৃহস্পতিবার এ প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। চলবে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সবার জন্য এ প্রদর্শনী উন্মুক্ত থাকবে। এ প্রদর্শনীতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৫টি দেশের ২৫০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে।

 

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়