চামড়া শিল্পে নগদ অর্থায়ন আরো ৫ বছর বহাল থাকবে

প্রকাশ | ১৬ নভেম্বর ২০১৭, ১৩:০২ | আপডেট: ১৬ নভেম্বর ২০১৭, ১৬:১৯

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

চামড়া শিল্পে বিদ্যমান কর ও নগদ অর্থায়ন সুবিধা আরো পাঁচ বছর বহাল রাখার আশ্বাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বৃহস্পতিবার চামড়া শিল্পের সবচেয়ে বড় ট্রেড শো লেদারটেক বাংলাদেশ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চামড়াজাত পণ্যের আন্তর্জাতিক এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। 

দেশের অর্থনীতিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রপ্তানি খাতের অবদানের কথা স্মরণ করে, এ শিল্পের উন্নয়নে সরকারের উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। 

তিনি বলেন, চামড়া শিল্প অমিত সম্ভাবনাময় খাত। ইতোমধ্যে এ শিল্প দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রপ্তানিকারী খাত হিসেবে বিবেচিত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ শিল্পের বিকাশে সরকার চামড়া ব্যবসায়ীদের রেয়াত ও ঋণ সুবিধাসহ বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করছে। শিল্পটিকে এগিয়ে নেয়ার জন্য প্রয়োজনে ব্যবসায়ীদের আরও সুযোগ-সুবিধা দেবে সরকার। বিদেশিদেরও এ খাতে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান তিনি। 

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, চামড়া শিল্পের মাধ্যমে যেসব পণ্য তৈরি হবে তা যেন আন্তর্জাতিক মানের হয়। এটা করতে পারলে এ শিল্পের পণ্য নতুন নতুন বাজার খুঁজে পাবে। আমরা চাই আমাদের চামড়া শিল্পের আরও প্রসার ঘটাতে বিদেশিরা যেন এ দেশে বিনিয়োগ করতে এগিয়ে আসে। 

তিনি বলেন, আমাদের দেশে কোরবানি ছাড়া প্রতিনিয়ত প্রচুর পশু জবাই হয়। এ ক্ষেত্রে যারা চামড়া ছাড়ানোর সঙ্গে যুক্ত থাকেন তাদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- চামড়াজাত পণ্য ও পাদুকা প্রস্তুতকারক এবং রপ্তানিকারকদের সংগঠন এলএফএমইএবির সভাপতি সাইফুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। এ ছাড়া ধারণকৃত বক্তব্য রাখেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটিতে আজ বৃহস্পতিবার এ প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। চলবে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত। প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সবার জন্য এ প্রদর্শনী উন্মুক্ত থাকবে। এ প্রদর্শনীতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৫টি দেশের ২৫০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে।

চামড়া, চামড়াজাত পণ্য ও ফুটওয়্যার শিল্প সংশ্লিষ্ট মেশিনারি, কম্পোনেন্ট, কেমিক্যাল ও অ্যাক্সেসরিজ উপস্থাপন করা হয়েছে। 

প্রসঙ্গত, চলতি অর্থবছরে চামড়াজাত পণ্য রপ্তানিতে নগদ সহায়তার হার সাড়ে ১২ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ করা হয়। এছাড়া চামড়াশিল্প নগরী থেকে ক্রাস্ট ও ফিনিশড লেদার রপ্তানিতে নগদ সহায়তার হার ১০ শতাংশ করা হয়। 

রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নে চামড়া রপ্তানি করে ৫০০ থেকে ৬০০ কোটি টাকা আয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগেই পাদুকাসহ চামড়াজাত পণ্যকে ‘বর্ষ পণ্য ২০১৭’ হিসেবে ঘোষণা করেছেন।

 

এসআর