• ঢাকা রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

ট্রাম্পের কর সংস্কার নীতির নেতিবাচক প্রভাব বৈশ্বিক শেয়ারবাজারে

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৮ নভেম্বর ২০১৭, ২০:২৯
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ছায়াতলে প্রায় এক বছর পার হলো দেশটির অর্থনীতি। এ সময়ে ফুলে ফেঁপে উঠেছে দেশটির শেয়ারবাজারও। তার ধাক্কা অবশ্য বিশ্ববাজারেও দেখা যায়।  

তবে নতুন করে শঙ্কা তৈরি করেছে ট্রাম্পের কর সংস্কার নীতির ‘বিলম্বে’ বাস্তবায়ন। বর্তমানে এই প্রেসিডেন্ট এশিয়া সফরে রয়েছেন। 

আজ বুধবার রয়টার্সের খবরে বলা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিতে ট্রাম্পীয় স্ফীতির প্রসারতার স্থায়ীত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠা ও কর সংস্কারের প্রস্তাব বাস্তবায়ন নিয়ে শঙ্কা তৈরি হওয়ায় বিনিয়োগকারীদের কপালে ভাজ পড়তে শুরু করেছে।

আর সেকারণে আজ ইউরোপের বাজারে ব্যাংকিং খাতের শেয়ারে দরপতন ঘটেছে। সেইসঙ্গে বিশ্বের প্রধান প্রধান কিছু মুদ্রার বিপরীতে ডলারের পতন হয়েছে। দরপতন হতে দেখা যায় ১০ বছর মেয়াদী ইউএস ট্রেজারি ইল্ডেরও। 

মার্কিন ব্যাংকগুলো দুর্বল পারফরম্যান্সের পর আজ শেয়ারবাজারে ইউরোপীয় ব্যাংকগুলো সবচেয়ে খারাপ নৈপূণ্যতা দেখিয়েছে।

লন্ডনের মিৎসুবিশি ইউএফজের বৈশ্বিক বাজার গবেষণা বিভাগের প্রধান দেরেক হালপেনি জানান, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কর সংস্কার নীতির বাস্তবায়ন নিয়ে তিনি সন্দিহান। হোয়াইট হাউজে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার প্রথম ধাপেই সমস্যা বয়ে এনেছে…যদি এ ঘটনা সত্যি হয়, তবে কর সংস্কার নীতি বাস্তবায়নে এক বছর বিলম্ব হতে পারে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের তথ্য অনুযায়ী, ট্রাম্প যুগের এক বছরে যুক্তরাষ্ট্রের শেয়ারবাজারে নতুন নতুন রেকর্ড তৈরি হয়েছে। এ সময়ে ওয়াল স্ট্রিট মার্কেটে ডাউ জোন ইন্ডাস্ট্রিয়াল এভারেজ সূচক প্রায় ৯০০ পয়েন্ট বেড়েছে।

মার্কিন বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান গোল্ডম্যান স্যাকসের শেয়ারদর আজ এক দশমিক ৫১ শতাংশ কমেছে।

ব্লুমবার্গ নিউজের খবর মতে, আজ ৮ নভেম্বর নিউ ইয়র্ক সময় সকালের দিকে স্টকস ইউরোপ ৬০০ সূচক শূন্য দশমিক ২ শতাংশ পতন হয়। যুক্তরাজ্যের এফটিএসই ১০০ সূচক সামান্য উন্নতি করেছে। জার্মানির ডিএএক্স সূচ পড়েছে শূন্য দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ।

এদিন ব্লুমবার্গ ডলার স্পট ইনডেক্স কমেছে শূন্য দশমিক ১ শতাংশ। ইউরোর মান বেড়েছে সামান্য। ব্রিটিশ পাউন্ড পড়েছে শূন্য দশমিক ৪ শতাংশ।

প্রসঙ্গত, গেলো এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবসায়ী ও করপোরেট কোম্পানির বিদেশের ‍মুনাফার উপর বড় ধরনের কর ছাড়ের প্রস্তাব করেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

করপোরেট কর ৩৫ শতাংশ থেকে ১৫ শতাংশে নামিয়ে আনার প্রস্তাব করেন তিনি। পাশাপাশিব্যক্তি পর্যায়ে আয়করে ছাড় এবং সম্পদের ওপর আরোপিত কর প্রত্যাহার এবং আয়কর বিবরণী সহজ করার কথা বলা হয় তার প্রস্তাবে।

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়