• ঢাকা রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

বিদ্যুতের দাম কমানোর প্রস্তাব

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০২ নভেম্বর ২০১৭, ১৫:৪৩
পাইকারিতে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবকে অযৌক্তিক বলে মনে করে ভোক্তা অধিকার রক্ষার সংগঠন কনজুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ বা ক্যাব। 

সংগঠনটি পাইকারিতে বিদ্যুতের দাম না বাড়িয়ে উল্টো প্রতি ইউনিটে ২৮ পয়সা কমানোর প্রস্তাব করেছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিদ্যুৎ ভবনে ক্যাব আয়োজিত ‘বিদ্যুতের দাম কমানোর প্রস্তাব’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এ দাবি জানানো হয়।

আলোচনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব  করেন ক্যাবের চেয়ারম্যান গোলাম রহমান।

ক্যাবের জ্বালানি উপদেষ্টা অধ্যাপক এম শামসুল আলম তার বক্তব্যে বলেন, কৃত্রিম ঘাটতি দেখিয়ে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রক্রিয়া চলছে। দাম বৃদ্ধির প্রক্রিয়া গণশত্রুতার শামিল। দাম বাড়ানো নয়, ২৮.৫ পয়সা কমানো সম্ভব। 

তিনি বলেন, কম দামী বিদ্যুৎ বেশি, বেশি দামী বিদ্যুৎ কম উৎপাদন করাসহ আমরা ১৫ দফা সুপারিশ দিয়েছি।  এই সুপারিশ বাস্তবায়ন হলে বিদ্যুৎ খাত মুনাফায় চলে আসবে।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবেক তত্বাবধায়ক সরকারের জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা ড. ম তামিম বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমেছে। আমি মনে করি জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয় করে এখনই বিদ্যুতের দাম কমানো সম্ভব।

আলোচনার শুরুতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির শিক্ষক ফাহিম আল দ্বীন। তিনি হিসেব করে দেখিয়ে দেন কিভাবে দাম কমানো সম্ভব।

আলোচনা সভায় নসরুল হামিদ বলেন, সাশ্রয়ী দামে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ পেতে আরো ৮ থেকে ১০ বছর প্রয়োজন। সে সময় পর্যন্ত সবাইকে ধৈর্য ধরতে হবে।

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়