• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

পণ্য পরিবহন ও গ্যাস সঙ্কট কাটেনি: বিজিএমইএ

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২১ অক্টোবর ২০১৭, ১৩:২০
বিদ্যুৎ আর গ্যাস সঙ্কট তো আছেই। তার উপর বন্দর ব্যবস্থাপনা ও পণ্য পরিবহন সঙ্কটও কাটেনি বলে জানিয়েছে পোশাক রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ।

এছাড়া যানজটের কারণে পোশাক কারখানার উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে সংগঠনটি।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারের বিজিএমইএ ভবনে আয়োজিত ‘পোশাক শিল্পের বর্তমান পরিস্থিতি’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে শুক্রবার সংগঠনটির সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান এসব অভিযোগ তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, গ্যাস সঙ্কটের কারণে গাজীপুর, আশুলিয়া, সাভার ও কোনাবাড়ি এলাকায় ৩৫০টি পোশাক কারখানা উৎপাদন করতে পারছে না। তবে সরকারের উচ্চপর্যায় মহল থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছে, একটি সার কারখানায় সরবরাহ বন্ধ করে পোশাক কারখানায় গ্যাস দেয়া হবে।

যানজটে পোশাক শিল্পের উৎপাদন ব্যাহত হওয়ার কথা বলতে গিয়ে বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘ঢাকা ও ঢাকার বাইরেও এখন যানজট সমস্যা। এই সমস্যার কারণে পোশাক শিল্পের উৎপাদন বিঘ্নিত হচ্ছে। বহু কর্ম-ঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে। উৎপাদন খরচ বাড়ছে।

এ সময় তিনি ঢাকা থেকে আশুলিয়া যাওয়ার পথে যানজটের বর্ণনা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘আশুলিয়া যেতে ২০ মিনিটের পথে তাদের সময় লাগছে তিন ঘণ্টা, আবার আসতে তিন ঘণ্টা। এ ছয় ঘণ্টা যদি রাস্তাতেই ব্যয় হয় তাহলে তারা পরিবারকে কীভাবে সময় দেবে।’

বিজিএমইএ সভাপতি আশুলিয়া-বাই-পাইল সড়কটি আরও প্রশস্ত করার জন্য সরকারের প্রতি আবেদন জানিয়ে বলেন, ‘আমরা এ সড়কটি প্রশস্ত করতে গত ২০ বছর ধরে বলে আসছি। কিন্তু এখনো তা কাজে আসেনি।

প্রতিদিন যানজটের কারণে রাজধানীতে ৩২ লাখ কর্ম ঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে বলে গত ১৯ জুলাই বিশ্বব্যাংকের এক প্রতিবেদনে উঠে আসে। সংস্থাটি বলছে, এ পরিস্থিতি দিন দিন আরও খারাপের দিক যাচ্ছে। গত ১০ বছরে রাজধানীতে যান চলাচলের গড় গতিবেগ ঘণ্টায় ২১ কিলোমিটার থেকে সাত কিলোমিটারে নেমেছে। তারা জানায়, ঢাকায় যানবাহনের গড় গতিবেগ হাঁটার গতির সামান্য বেশি।

বিজিএমইএ সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, রপ্তানি কার্যক্রম নির্বিঘ্ন করতে সরকার চট্টগ্রাম বন্দরসহ সব বন্দর সপ্তাহের ৭ দিন ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখার নির্দেশ দিয়েছে। ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরেও বেশ কিছু ইতিবাচক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, যা লিড টাইম কিছুটা কমিয়েছে।

“তবে প্রকৃত তথ্য হলো পণ্য পরিহন সঙ্কট এখনও কাটেনি। চট্টগ্রাম বন্দরের সক্ষমতা যুগের চাহিদা অনুযায়ী বাড়েনি।”

বন্দরে কনটেইনার হ্যান্ডলিং ব্যবস্থায় অব্যবস্থাপনা থাকার কারণে পোশাক শিল্পের প্রতিযোগী দেশগুলোর তুলনায় আমদানি করা কাঁচামাল খালাসে ১০ থেকে ১৫ দিন বেশি লাগছে বলে অভিযোগ করেন বিজিএমইএ সভাপতি।

সংবাদ সম্মেলনে সিদ্দিকুর বলেন, বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা চার হাজার ৯৪২ মেগাওয়াট থেকে বেড়ে ১৫ হাজার ৬০০ মেগাওয়াটে উন্নীত হয়েছে।

“কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে যে, এখনও ঢাকার বাইরে বিভিন্ন স্থানে দৈনিক ৩-৪ ঘণ্টা করে লোডশেডিং হচ্ছে।”

গ্যাস সঙ্কট নিয়ে তিনি বলেন, “বর্তমানে গাজীপুর, আশুলিয়া, সাভার, কাশিমপুর ও কোনাবাড়ি এলাকায় গ্যাস সঙ্কট ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। এই এলাকার পোশাক কারখানা গ্যাস সঙ্কটে উৎপাদন করতে পারছে না।”

সংবাদ সম্মেলনে বিজিএমইএর প্রথম সহ-সভাপতি মঈনউদ্দিন আহমেদ (মিন্টু), সহ-সভাপতি এস.এম. মান্নান (কচি), মাহমুদ হাসান খান (বাবু), পরিচালক শহিদুল হক মুকুল, আশিকুর রহমান (তুহিন), মিজানুর রহমান চৌধুরী, আতিকুল করিম খান উপস্থিত ছিলেন।

এসআর

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়