• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

চামড়া নষ্টের দায় নেবে না ট্যানারির মালিক

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২৬ আগস্ট ২০১৭, ২১:৫১
পানি, বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগ এবং ভাঙা রাস্তা মেরামত না করলে কোরবানির পশুর চামড়া নষ্ট হতে পারে। তাই চামড়া নষ্টের দায় ট্যানারির মালিকরা নেবেন না। জানালেন বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএফএলএলএফইএ) সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ মাহিন।   

শনিবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে সংগঠনের কার্যালয়ে কোরবানি পশুর চামড়া সংগ্রহ, পরিবহন ও সংরক্ষণ নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সমিতির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান দিলজান ভূঁইয়া, ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবদুল আউয়ালসহ আরো অনেকে।  

মাহিন বলেন, চামড়া শিল্পনগরী পর্যন্ত রাস্তাঘাট ভেঙে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে গেছে। ভাঙা সড়কে একটি ট্রাক আটকে গেলে ভয়াবহ যানজট সৃষ্টি হবে। শিল্পনগরীর ভেতরের সড়কের অবস্থাও শোচনীয়। ফলে চামড়াবাহী ট্রাকসহ বিভিন্ন পরিবহন এ রোডে চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

তিনি বলেন, ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকার কাঁচা চামড়া প্রতিবছর হাজারীবাগে নিয়ে আসেন  চামড়া ব্যবসায়ীরা। তবে এবার হাজারীবাগে কাঁচা চামড়া প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আছে। এদিকে ভাঙা রাস্তার জন্য হেমায়েতপুরে চামড়া নিয়ে যাওয়া ঝুঁকিপূর্ণ। এ অবস্থায় এবার কাঁচা চামড়া সংগ্রহ, পরিবহন ও সংরক্ষণের ব্যাপারে প্রচণ্ড অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। ট্যানারি মালিকেরা চামড়া সংরক্ষণে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবে। পাশাপাশি সরকারের সহযোগিতা কামনা করছি। 
 
চামড়া পাচার প্রসঙ্গে মাহিন বলেন, এ বছর চামড়া পাচার হওয়ার কোনো আশঙ্কা নেই। এ ব্যাপারে সরকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে খুব তৎপর থাকার নির্দেশ দিয়েছে।

লবণের ঘাটতি ও মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে মাহিন বলেন, প্রত্যেক বছরই কোরবানির সময় লবণের ঘাটতি ও মূল্য বৃদ্ধি দেখা যায়। মাঝারি চামড়ার জন্য ৬ থেকে ৮ কেজি এবং বড় চামড়ার জন্য ১০ থেকে ১২ কেজি লবণ দিতে হবে। চামড়ার গুণমান ভালো থাকলেই দাম ভালো পাওয়া যাবে। গেলো বছর লবণের অভাবে প্রায় ৩০ শতাংশ চামড়ার গুণমান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। এবারও লবণের দাম এরই মধ্যে বেড়ে গেছে। সারা বছর এক বস্তা (৭৫ কেজি) লবণের দাম থাকে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা। কোরবানি ঈদের আগে সেটি বেড়ে এক হাজার থেকে ১২শ’ টাকা হয়ে যায়।  

তিনি আরো বলেন, তবে সরকার থেকে বলা হয়েছে এ বছর কোরবানির চামড়া সংগ্রহের জন্য চার-পাঁচ লাখ টন আমদানি করা হবে, সেটার ব্যবস্থা হলে চামড়া সংগ্রহে সমস্যা থাকবে না।

এমসি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়