• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

আবাসনে ভ্যাট আরোপ না করে বিকল্প চিন্তার দাবি

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ০৭ মে ২০১৭, ১৮:১৬
ভ্যাট বা টেক্সের আওতা না বাড়িয়ে মুষ্টিমেয় কিছু লোকের ওপর তা চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে।  উন্নয়নশীল দেশে এত ভ্যাট নেয়া হয় না।  আবাসন খাতকে রক্ষায় ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ না করে বিকল্প চিন্তা করতে হবে।

বললেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

রোববার ঢাকা ক্লাবে সেন্টার ফর কমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক (সিসিএন) আয়োজিত ‘জাতীয় অর্থনীতিতে আবাসন খাত’শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে আয়কর দাতা মাত্র ১২ লাখ। ট্যাক্সের আওতা বাড়াতে হবে। ১৬ কোটির মধ্যে কমপক্ষে ৮ কোটি লোকের ট্যাক্স দেয়ার ক্ষমতা আছে।  এনবিআর যদি বন্ধুসুলভ ব্যবহার করে, গ্রামগঞ্জে গিয়ে মানুষকে হয়রানি না করে তাহলে সবাই ট্যাক্স দেবে।

গণপূর্তমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি দেশ আবাসন খাতকে প্রাধান্য দিয়েছে। অনেক দেশে এ খাতে ৩০ বছরের জন্য ৩ শতাংশ সুদে ঋণ দেয়া হয়।  তারা পারলে আমরা পারবো না কেন?  আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করবো যাতে এ খাতে সিঙ্গেল ডিজিটে ঋণ দেয়া যায়।

মোশাররফ বলেন, ৯৪১ কোটি টাকা ব্যয়ে ৫০ হাজার পরিবারের জন্য ফ্ল্যাট তৈরি করা হচ্ছে। ঝিলমিল প্রকল্পে ১৩ হাজার অ্যাপার্টম্যান্ট, পূর্বাচলে ৭০ হাজার থেকে ১ লাখ ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হবে।

তিনি আরো বলেন, বস্তিবাসীদের জন্য ভাড়াভিত্তিক আবাসনের ব্যবস্থা করা হবে। সেখানে যারা থাকবে তাদেরকে দৈনিক হারে ভাড়া পরিশোধ করতে হবে। প্রতিটি ফ্লাটের আয়তন হবে ৫৫০ বর্গফুটের মতো। আলাদা টয়লেট, রান্নাঘর ও ওয়াশিং ব্যবস্থা থাকবে।  প্রাথমিকভাবে ৫০০ অ্যপার্টম্যান্ট করা হবে। তবে আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে ১০ হাজার অ্যাপার্টম্যান্ট তৈরি করা।

অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন,  এনবিআরের কাজ নিয়েও প্রশ্ন করার সুযোগ আছে। যেসব ব্যবসায়ীর বার্ষিক টার্নওভার ৩০ লাখ টাকা পর্যন্ত তারাও ভ্যাটের বাইরে রয়েছে। রাজউকের যে কাজ, তারা তা করছে না। তাদের নগর উন্নয়ন করার কথা কিন্তু তারা তা না করে নির্মাণ করছে।

সভায় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল মজিদ, বিজিএমই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, রাজউকের সাবেক চেয়ারম্যান প্রকৌশলী নুরুল হুদা, রিহ্যাবের সভাপতি আলমগীর শামসুল আলামিন, জিল্লুর রহমানের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য দেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক, দৈনিক আমাদের অর্থনীতির সম্পাদক নাঈমুল ইসলাম খানসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এমসি/সি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়