close
ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট ২০১৭ | ০৮ ভাদ্র ১৪২৪

আপন জুয়েলার্সের বিরুদ্ধে মুদ্রাপাচার আইনে ৫ মামলা

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১২ আগস্ট ২০১৭, ২০:৪৯ | আপডেট : ১২ আগস্ট ২০১৭, ২৩:১৪
আপন জুয়েলার্সের প্রায় ১৫ মণ স্বর্ণালঙ্কার ও হীরা আটকের ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মুদ্রাপাচার প্রতিরোধ আইনে পাঁচটি মামলা হয়েছে।

শনিবার রাজধানীর গুলশান, ধানমণ্ডি, রমনা ও উত্তরা থানায় এসব মামলা করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

এসব মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক তিন ভাই দিলদার আহমেদ সেলিম, গুলজার আহমেদ ও আজাদ আহমেদকে আসামি করা হয়েছে।

গেলো ২৮ মার্চ রাতে রাজধানীর বনানীর 'দ্য রেইনট্রি' হোটেলে সাফাত আহমেদের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে গিয়ে রাতভর ধর্ষণের শিকার হন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী। ধর্ষণের ঘটনার ভিডিওচিত্র ধারণ করে ঘটনার এক নম্বর আসামি আপন জুয়েলার্সের অন্যতম মালিক দিলদার হোসেনের ছেলে সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল হোসেন। আরেক ধর্ষক নাঈম আশরাফ।

দুই ধর্ষকের সহযোগী সাদমান সাকিফ 'রেগনাম গ্রুপের' ব্যবস্থাপনা পরিচালক। অপর আসামি আবুল কালাম আজাদ হলো সাফাতের দেহরক্ষী। ৬ মে দুই ছাত্রী বনানী থানায় মামলা করেন। পরে আসামিদের গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নেয়া হয়। 

এসব ঘটনার পরে আপন জুয়েলার্স থেকে জব্দ করা হয় ১৫ দশমিক ৩ মণ সোনা এবং ৭ হাজার ৩৬৯টি হীরার অলঙ্কার। সেগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকে পাঠায় শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর।

মজুদ এসব সোনা-গহনার বৈধতার কোনো কাগজপত্র দেখাতে না পারায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের নির্দেশনায় আপন জুয়েলার্সের বিরুদ্ধে এই মামলাগুলো করা হয়েছে বলে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তর জানিয়েছে।

এসএস 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়