close
ঢাকা, বুধবার, ২৩ আগস্ট ২০১৭ | ০৮ ভাদ্র ১৪২৪

এতদিন জানতাম না সালমান শাহ খুন হয়েছে : রুবী (ভিডিও)

হোসাইন তারেক, আরটিভি অনলাইন
|  ০৯ আগস্ট ২০১৭, ১১:৫২ | আপডেট : ০৯ আগস্ট ২০১৭, ১২:১১
আমি এতদিন জানতামই না সালমান শাহ খুন হয়েছে। গেলো কিছু দিন আগে জানতে পেরেছি সালমান শাহকে হত্যা করা হয়েছে। কারণ এতদিন আমি ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের ওপর বিশ্বাস করেছি। কিন্তু বুঝতে পারিনি বাংলাদেশে এভাবে ভুল প্রতিবেদন দিতে পারে।

বুধবার বাংলাদেশ সময় সকাল ৯টার দিকে নতুন এক ভিডিওবার্তায় তিনি এসব কথা বলেন।

রুবী সুলতানা বলেন, ‘সালমান শাহর মতো এতবড় একজন নায়কের ময়নাতদন্ত এমন হবে তাতো আমি বুঝতে পারিনি। এত বড় গড়মিল কেনো হলো সেটা আমার চিন্তায় আসছে না। কারণ সালমানতো তখনকার সময় অনেক বড় সুপারস্টার ছিল।’

তিনি বলেন, ‘আমি যখন সকালে বাসায় যাই তখন দেখি কয়েকজন সালমান শাহর মরদেহ ধরাধরি করে নিয়ে যাচ্ছে। তখন দেখলাম ওর মুখ নীল আর ঠোটগুলো কালো হয়ে আছে। এর পর ঘুরে ঢুকে দেখি সামিরা রান্নাঘর ও ড্রয়িং রুমের মাঝে বসে আছে। আমাকে দেখে সে চিৎকার করে বলে আন্টি ইমন মারা গেছে।’

রুবী বলেন, ‘সালমান শাহ যে দিন মারা যান সেদিন সামিরা বাড়ির ছাদের ওপর দিয়ে আমার ছেলেকে কাপড় মুড়িয়ে কিছু একটা দিয়েছিল। যেটা আমার ছেলের মাধ্যমে জেনেছি। কিন্তু তার মধ্যে কি ছিল সেটা আমি নিশ্চিত না। এখন আমার ছেলে স্বীকার করবে কি করবে না সেটা তার ব্যাপার।’ 

তিনি বলেন, ‘সালমান শাহকে যে খুন করা হয়েছে তা বোঝা গেছে সামিরাকে দেখে। কারণ সালমান শাহ মারা যাবার পর সামিরা হাসপাতালে না গিয়ে নিজের গহনা গুছানোর কাজে ব্যস্ত ছিল। এর পর সে পাশে ফুফুর বাসায় না গিয়ে প্রতিবেশীর বাসায় গিয়েছিল। সেখানে তার বাবা, মা আসার আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করেছে। সন্ধ্যায় তার বাবা, মা এসে তাকে নিয়ে যায়। তার আগে প্রতিবেশীর বাসায় থাকার সময় সে আমাকে তার বাবার সঙ্গে কথা বলতে বলে। আমি শফিকুল হক হীরা ভাইকে ফোন দিলে তিনি আমাকে এক পুলিশ অফিসারের নাম্বার দেন। ওই অফিসারকে আমি বললাম, সামিরাকে আমার বাসায় নিয়ে যাব? তখন তিনি বলেন, না ভুলেও এটা করবেন না, তাহলে আপনি ফেঁসে যাবেন।’

ভিডিওতে রুবী দাবি করেন, সামিরা তাকে বলেছেন সালমান শাহ একটি সুইসাইড নোট রেখে গেছেন। আমি তার কাছে ওই সুইসাইড নোটের বিষয়ে জানতে চাইলে সামিরা বলে, ওই সুইসাইড নোটতো আবুলের কাছে। কিন্তু আমি আজও জানি না আবুলটা কে? আর সালমানের সুসাইড নোট কোথায় গেলো।

রুবী বলেন, ‘যদি সালমান শাহ আত্মহত্যা করে তাহলে কেনো সামিরা কথা বলে না? কেনো তার বাবা বা স্বামী কথা বলে? সামিরার মা বা সামিরা কেনো কথা বলে না। সামিরাকে সবার সামনে নিয়ে আসলে আসল তথ্য বের হয়ে যাবে।’

ভিডিওতে রুবী আরো বলেন, ‘সামিরার গায়ে সালমান শাহ দুই বার হাত তুলেছে। একবার হচ্ছে সামিরাকে সালমান শাহর মার দেয়া কাপড় তার কাজের মেয়েকে দেয়ার জন্য।  আরেকবার হলো সামিরার চরিত্র নিয়ে অভিযোগ উঠায়। দ্বিতীয়বার সামিরার গায়ে হাত তোলার জন্য মিটিং হয়েছিল। তখন সেখানে সালমানের বাবা, সামিরার মা লুসি, জেনারেল শওকতসহ বেশ কয়েকজন পরিচালক ছিলেন। এগুলো আমার কথা না, সামিরা আমাকে ডেকে নিয়ে এসব কথা বলেছে।’

নিজের জীবন নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে রুবী বলেন, ‘আমার যদি কিছু হয় তাহলে মনে করবেন এর সঙ্গে আমার পরিবার জড়িত। বাহিরের কেউ করলেও তা আমার পরিবারের লোকজনই দায়ী থাকবে। বাহিরের কারো সঙ্গে আমার কোনো শত্রুতা নেই।’ 

 

এইচটি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়