• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

ফেব্রুয়ারিতে ফুল বেচে আয় কোটি টাকা

শিপলু জামান, ঝিনাইদহ
|  ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১৬:৩৮ | আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১১:৫৮
ফুল ভালোবাসে না এমন কেউ নেই। তাই বছরের জুড়েই কম বেশি চাহিদা থাকে ফুলের। বর্তমানে ফুলের ভরা মৌসুম। এর বাইরে চলতি মাসে রয়েছে বড় তিনটি দিবস। ১৩ ফেব্রুয়ারি পহেলা ফাল্গুন বসন্ত দিবস, ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস এবং ২১ ফেব্রুয়ারি মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। এই তিনটি দিবসে ফুলের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে দেশজুড়ে। এসব দিবস  উপলক্ষে কোটি টাকা লাভের আশা করছেন ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের ফুলপল্লির ফুলচাষিরা।

কালীগঞ্জ উপজেলায় ফুল চাষে এবার নীরব বিপ্লব ঘটেছে। কৃষিকাজের পরিবর্তে ফুল চাষকে পেশা হিসেবে নিয়ে ভাগ্য পরিবর্তন করেছেন অনেক কৃষক। উপজেলার শতাধিক কৃষক এ ফুল চাষের সঙ্গে জড়িত। এখানে উৎপাদিত গাঁদা ফুলের ওপর নির্ভর করতে হয় রাজধানীর শাহবাগের ফুলের বাজারসহ দেশের ফুল ব্যবসায়ীদের। দিন দিন এখানকার ফুলের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ঝিনাইদহ জেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, ঝিনাইদহের ৬ উপজেলায় প্রায় ২৫০শ’ হেক্টর জমিতে নানা জাতের ফুল চাষ হচ্ছে। সবচেয়ে বেশী ফুল চাষ হচ্ছে কালীগঞ্জ উপজেলার ফুলপল্লি নামে খ্যাত বালিয়াডাংগা, এলোচনপুর, কোলা ও নলডাংগাসহ বিভিন্ন গ্রামে। চলতি মৌসুমে এ উপজেলায় ফুল চাষ হয়েছে ১শ’ হেক্টর জমিতে।

বেলেডাংগা গ্রামের ফুলচাষি মোতালেব হোসেন বলেন, এক বিঘা জমিতে ফুল চাষ করতে খরচ হয় ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা। ভালো দাম পেলে লাভ হয় প্রায় একলাখ টাকা। এ জন্য ফুলচাষের হার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

কালীগঞ্জ কৃষি কর্মকর্তা জাহিদুল কবির বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত কৃষকদের ফুল চাষ সম্পর্কে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকি, এর ফলে সঠিকভাবে ফুল চাষ করে লাভবান হচ্ছেন কৃষকরা।

রিপন মিয়া নামের এক ফুলচাষি বলেন, আগে যেখানে তিন বেলার ভাত যোগাতে সবাই ধান চাষ করত। এখন ভাতের পাশাপাশি বাড়তি স্বাচ্ছন্দ্য পেতে চাষিরা বেছে নিচ্ছেন ফুলচাষ।

জেলা কৃষি বিভাগ জানায়, জেলায় এবার ফুল চাষের ব্যাপক সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। জেলার স্থানীয় ফুল বাজারগুলোতে প্রতিদিন বিপুল পরিমাণ ফুল বিক্রি হচ্ছে। যা রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ফুল বাজারের চাহিদা পূরণ করছে।

অসময়ে ফুল সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা হলে কৃষকরা ফুল চাষের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি অর্জনে বড় ধরণের ভূমিকা রাখতে পারবেন বলে মনে করেন ফুলচাষিরা।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়