• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

রংপুরে বাড়ছে হেলমেট বিক্রি, কমছে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা

রংপুর প্রতিনিধি
|  ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৬:৫৯ | আপডেট : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:১৩
সড়কে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা রোধে বিভাগীয় নগরী রংপুরে নেয়া হয়েছে নতুন উদ্যোগ ‘নো হেলমেট নো পেট্রোল’। এ কর্মসূচির ফলে নগরীতে বেড়েছে হেলমেট বিক্রি। পাশাপাশি কমেছে মোটর সাইকেলের দুর্ঘটনা। এ নিয়ে নগরবাসীর মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিলেও বেশিরভাগ মানুষই পুলিশের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন।

দুর্ঘটনা থেকে মোটরসাইকেল চালকদের রক্ষা করতে হেলমেট পরে রাস্তায় চলাচল বাধ্য করার জন্যই রংপুরের পুলিশ প্রশাসন ‘নো হেলমেট নো পেট্রোল’ কর্মসূচি শুরু করেছে। রংপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পেট্রোল পাম্প মালিক সমিতির সঙ্গে পুলিশ প্রশাসনের এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত  নেওয়া হয়। হেলমেট ছাড়া কোনও মোটরসাইকেল চালকের কাছে পেট্রোল পাম্পের তেল বিক্রি করা হবে না বলে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নগরীর সব পেট্রোল পাম্পে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সেই সঙ্গে হেলমেট না থাকলে কোনও মোটরসাইকেলে পেট্রোল বা অকটেন বিক্রি করছে না পাম্প মালিকরা। এছাড়াও নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে হেলমেটবিহীন চালকদের মোটরসাইকেলসহ আটক করছে পুলিশ।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : পদ্মার ভাঙন: নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স পরিত্যক্ত ঘোষণা
-------------------------------------------------------

মোটরসাইকেলচালক আল আমিন বলেন, পুলিশ ও পাম্প মালিকদের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন রংপুরবাসী। শুধু রংপুরেই এ কর্মসূচি নয়, সারাদেশে এটা চালু করা উচিৎ।

নগরীর একটি পেট্রোল পাম্পের কর্মচারি রুহুল জানান, তারা নিয়ম মানলেও খোলা বাজারে যারা তেল বিক্রি করছে, তাদের কারণে কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে এ কর্মসূচি।

রংপুর চেম্বারের প্রেসিডেন্ট ও রংপুর জেলা পেট্রোলিয়াম ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটু বলেন, পুলিশের পক্ষ থেকে আমাদের অনুরোধ করা হয়েছে। বিষয়টি অতি গুরুত্ব সহকারে নিয়েছি। এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা গেলে সড়ক দুর্ঘটনা অনেকটাই কমে আসবে। জেলার প্রতিটি পাম্প মালিক ও কর্মচারীদের নিয়ে সেমিনার এবং চালকদের হেলমেট ব্যবহারে সচেতনতা বাড়াতে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে।

রংপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু মারুফ হোসেন জানান, সড়ক-মহাসড়ক ছাড়াও আঞ্চলিক সড়কেও এখন অনেক মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা ঘটছে। মাথায় হেলমেট না থাকার কারণে ক্ষতি হচ্ছে বেশি। কিন্তু হেলমেট থাকলে ক্ষতি কম হয়। তাই মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা রোধে হেলমেট ছাড়া পেট্রল না দিতে পাম্প মালিকদের নিয়ে যৌথ উদ্যোগ এছাড়া ব্যানার, পোস্টার ও লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে। এ কর্মসূচির শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত কোথাও কোনও মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা ঘটেনি।

রংপুর সুমি মটরস এর চেয়ারম্যান তানভীর হোসেন আশরাফী বলেন, এ কর্মসূচির ফলে জনগণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। পাম্পগুলোতে হেলমেট ছাড়া তেল না বিক্রি করায় হেলমেট কিনছেন বাইক চালকরা। সারা বছরে যা হেলমেট বিক্রি হয় গত ১০ দিনে এর ডাবল হেলমেট বিক্রি হয়েছে রংপুরে, পাশাপাশি সড়ক দুর্ঘটনাও অনেক কমে এসেছে।

শুধু রংপুর জেলায় নয় দেশের প্রতিটি জেলায় এমন নিয়ম চালু করলে সড়কে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা অনেকটাই হ্রাস বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

আরও পড়ুন : 

এমসি/পি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়