• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

টাঙ্গাইলে গ্রেপ্তারকৃতকে নিয়ে পুলিশ-গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ২০

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি
|  ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২৩:১০ | আপডেট : ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২৩:৩৭

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে মাদক ব্যবসার অভিযোগে এক মসলা ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা নিয়ে পুলিশ এবং তার গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ছয় পুলিশ, নারী ও শিশুসহ ২০ জন আহত হয়েছেন।

রোববার গোপালপুর পৌর এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এই বিষয়ে গোপালপুর পৌর মেয়র রকিবুল হক ছানা বলেন, কোনাবাড়ী গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে মসলা ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলামকে গত রাতে নিজ বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ। আজ সকালে তার স্বজনরা তাকে দেখতে গেলে পুলিশ তাদের বাঁধা দেয়। এসময় পুলিশের সঙ্গে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। পুলিশ তাদের ওপর লাঠি চার্জ করে থানা থেকে বের করে দেয়।

তিনি বলেন, এই খবর ছড়িয়ে পড়লে কোনাবাড়ীর লোকজন উত্তেজিত হয়ে পড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিচার্জ এবং ২৭ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এতে নারী ও শিশুসহ প্রায় ২০ জনের মতো আহত হন। আমার জানা মতে, শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে এখনও কেউ মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ তোলেনি।

গোপালপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) হাসান আল মামুন জানান, শনিবার রাতে গোপালপুর পৌর এলাকার কোনাবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ শফিকুলকে ৩৭ পিস ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করে। তার নামে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা করা হয়। আজ সকালে তার গ্রামের লোকজন রাস্তা অবরোধ এবং যানবাহন ভাংচুর শুরু করে।

তিনি বলেন, তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করতে ২৭ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। ঘটনাস্থল থেকে সুমন ও সোহেল নামে দুজনকে আটক করা হয়। তাদের ছোড়া ইটপাটকেলের আঘাতে ছয় পুলিশ সদস্য আহত হয়। তাদের মধ্যে দুজনকে গোপালপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন :

কে/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়