• ঢাকা মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩ আশ্বিন ১৪২৫

১৫ দিনে পদ্মায় বিলীন শতাধিক স্থাপনা

ফরিদপুর প্রতিনিধি
|  ২৯ আগস্ট ২০১৮, ১৮:৩৮ | আপডেট : ২৯ আগস্ট ২০১৮, ১৯:০৬
ফরিদপুরে তীব্রতর হচ্ছে পদ্মা নদীর ভাঙন। ১৫ দিনেই নদীতে বিলীন হয়েছে শতাধিক বসতবাড়ি, ফসলি জমি, সরকারি স্কুল ও মসজিদ-মাদরাসাসহ বিভিন্ন স্থাপনা। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর কাটছে মানবেতর জীবন। ভাঙন ঠেকাতে দ্রুত উদ্যোগ নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন। 

ফরিদপুর সদর ও চর ভদ্রাসন উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় এ ভয়ংকর রূপ নিয়েছে পদ্মা।

এরই মধ্যে এমপি ডাঙ্গী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও এমপি ডাঙ্গী মাদরাসাসহ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিলীন হবার পথে। নদীতে সর্বস্ব হারানো বহু পরিবারের ঠাই মিলেছে খোলা আকাশের নিচে। আবার ঝুঁকিতে থাকা অনেক পরিবার শেষ সম্বলটুকু সরিয়ে নিচ্ছেন নিরাপদ জায়গায়। 

ভুক্তভোগী এক শিক্ষার্থী জানান, স্কুল কলেজ বাড়ি ঘর সব ভেঙে নিয়ে গেছে। 
-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এনা বাস খাদে পড়ে নিহত ৩
-------------------------------------------------------

ষাট ঊর্ধ্ব এক ভুক্তভোগী জানান, সরকারের কাছে একটাই দাবি আমাদের এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো যেন রক্ষা করে। 

বেশ কয়েকজন ভুক্তভোগী জানান, যেভাবে পদ্মায় ভাঙন শুরু হয়েছে এখনই ব্যবস্থা না নিলে আগামী কয়েকদিনে পুরো গ্রাম পদ্মায় বিলীন হয়ে যাবে। পদ্মার চলমান ভাঙন রোধে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ের কার্যকর উদ্যোগ দেখতে চান ফরিদপুরবাসী। 

নদীর ভাঙন রোধে বিভিন্ন উদ্যোগের কথা জারিয়ে ফরিদপুরের পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদ বলেন, সংরক্ষণ প্রকল্প পাস হয়েছে। আশা করছি শুষ্ক মৌসুমে আমরা কাজ করতে পারবো। শুষ্ক মৌসুমে প্রকল্পের কাজ শেষ করতে পারলে ভাঙন রোধ করা সম্ভব হবে। 

জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া বলেন, পদ্মার ভাঙনের মাত্রা খুবই বেশি হচ্ছে। স্থানীয় প্রতিনিধির সঙ্গে জনগণকে এক হয়ে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। 

এসময় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে এসে দুর্গতদের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দেন জেলা প্রশাসক। 

এমসি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়