ইচ্ছে করেই মা-মেয়েকে বাসের ধাক্কা, প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রকাশ | ২৯ আগস্ট ২০১৮, ১৩:৩৮ | আপডেট: ২৯ আগস্ট ২০১৮, ১৩:৫৩

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

মাত্র কয়েকদিন আগেই ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ দাবিতে সারাদেশ উত্তাল ছিল। এর পর পুলিশের পক্ষ থেকে সারাদেশে চলে ট্র্যাফিক সপ্তাহ। বিশেষ এই ট্র্যাফিক সপ্তাহে যানবাহনের নিবন্ধন, লাইসেন্স, ফিটনেস, ইনস্যুরেন্সের কাগজ দেখে মেয়াদ যাচাই করে পুলিশ সদস্যরা।

বিশেষ এই ট্র্যাফিক সপ্তাহে যেতে না যেতেই কুষ্টিয়ায় একটি যাত্রীবাহী বাস ইচ্ছে করে মা-মেয়েকে ধাক্কা দেয়ার অভিযোগ ওঠেছে। এ ঘটনায় মা ও শিশু মেয়ে গুরুতর আহত হয়েছে। 

মঙ্গলবার বেলা ১১টা ৪৪ মিনিটে এ ঘটনা ঘটে। রাজশাহী থেকে ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা গঞ্জেরাজ (ঢাকা মেট্রো-গ-১৪-০১৭৭) নামের একটি বাস কুষ্টিয়ার চৌড়হাস মোড়ে এসে থামে। ভিডিওটিতে দেখা যায়, বাসটি সড়কের পাশে দাড়িয়ে ছিল। এই সময়ে একজন নারী তার শিশু কন্যাকে কোলে নিয়ে ওই বাসের সামনে দিয়ে হেটে যাচ্ছিল। হঠাৎ কোন হর্ন ছাড়াই চালক বাসটি চালিয়ে এসে মা রিনা বেগমকে ধাক্কা দেয়। এতে মায়ের কোল থেকে রাস্তার উপর ছিটকে পড়ে আহত হয় শিশু আকিফা। ভিডিওতে দেখে মনে হচ্ছে বাস চালক ইচ্ছে করেই ওই মা মেয়েকে চাপা দিয়েছে। ঘটনা ঘটার পর দ্রুত বাসটি পালিয়ে যায়। 

পরে স্থানীয়দের সহায়তায় আহত মা মেয়েকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে। সেখানে শিশুটির অবস্থার অবনতি হওয়ায় সন্ধ্যায় তাকে তার মাসহ উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকাতে স্থানান্তর করা হয়। ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন শিশুর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান তার স্বজনরা। তবে মায়ের অবস্থা শঙ্কামুক্ত। 

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : পাওনা টাকার বিরোধে মাদরাসা শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা
-------------------------------------------------------

আহত শিশু আকিফা কুষ্টিয়া শহরের চৌড়হাস এলাকার সবজি ব্যবসায়ী হারুন উর রশিদের মেয়ে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি তদন্ত ওবাইদল্লাহ জানান, অভিযোগ দিলে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

ঘটনার সময় শিশুকে উদ্ধারকারী শ্রমিক নেতা রাসেল জানান, বাসটি মা-মেয়েকে ধাক্কা দেয়ার সময় বাসের যাত্রীরাই চিৎকার দিয়ে ওঠেন। এ সময় কোনও কিছুর তোয়াক্কা না করে চালক বাস দিয়ে মা মেয়েকে ধাক্কা দিয়ে বাস চালিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। এ সময় অন্যান্যরা বাস টিকে ধাওয়া করেও আটকাতে ব্যর্থ হয়। 

তিনি এ ঘটনার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করে জানান, শিশুর বাবা আর্থিকভাবে সচ্ছল নয়। আমি শ্রমিক ইউনিয়ন করি তাই বলে অপরাধকে প্রশ্রয় দিবো না। 

আহত আকিফার বাবা হারুন উর রশিদ এর সঙ্গে কথা হলে তিনি মোবাইল ফোনে তার মেয়ের জন্য দোয়া চান।  

মঙ্গলবার দুপুরে কুষ্টিয়ার চৌড়হাস বাসস্ট্যান্ডে এই ঘটনা ঘটে। ঘটনাটি পাশের একটি সোনার দোকানের সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। ওই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে মানুষ ক্ষোভ প্রকাশ করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছে।

এদিকে আজ বুধবার সকাল ১১টায় ঘটনাস্থল ওই চৌড়হাস বাসস্ট্যান্ডে দাড়িয়ে ওই বাসের চালকের শাস্তি দাবীতে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। এতে স্কুলের শিক্ষার্থীরা, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশাজীবী ও এলাকার জনসাধারণ অংশ নেয়। এসময় পুলিশের আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দিলে ঘণ্টব্যাপী চলা এই মানববন্ধন শেষ হয়। তবে দ্রুত এই ঘটনার দৃশ্যমান বিচার না পেলে আরও বড় ধরনের আন্দোলনে যাবেন বলে ঘোষণা দিয়েছে মানববন্ধনকারীরা।

আরও পড়ুন :

এসএস