বরগুনায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ জলদস্যু বাহিনীর প্রধান নিহত

প্রকাশ | ২৮ আগস্ট ২০১৮, ১৩:০১ | আপডেট: ২৮ আগস্ট ২০১৮, ১৩:১০

বরগুনা প্রতিনিধি

বরগুনায় র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সুন্দরবনের জলদস্যু নওয়া বাহিনীর প্রধান রফিকুল ইসলাম রানা (৩৬) নিহত হয়েছেন।

আজ(মঙ্গলবার) সকালে বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার সুন্দরবন সংলগ্ন বলেশ্বর নদের মাঝের চরে বন্দুকযুদ্ধের এ ঘটনা ঘটে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দুটি বন্দুক, একটি ওয়ান শুটারগানসহ বেশকিছু দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

র‌্যাব-৮ এর সিইও আতিকা ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জলদস্যুদের বিরুদ্ধে বলেশ্বর নদের মাঝের চর এলাকায় অভিযান চালান র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে জলদস্যু নওয়া বাহিনীর সদস্যরা। তখন আত্মরক্ষার জন্য র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালান। দু’পক্ষের গুলিবিনিময়ের এক পর্যায়ে জলদস্যু বাহিনীর সদস্যরা পিছু হটলে, ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে রানার গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করেন র‌্যাব সদস্যরা।

সিইও আতিকা ইসলাম আরও জানান, বন্দুকযুদ্ধে নিহত রানা এক সময়ের সুন্দরবনের জলদস্যু নওয়া বাহিনীর সদস্য ছিলেন। পরে র‌্যাবের কাছে নওয়া বাহিনীর সকল সদস্যরা আত্মসমর্পন করলেও রানা তখন আত্মসমর্পন করেনি। পরে সে নিজেই সুন্দরবনে নওয়া বাহিনী নামেই আরেকটি জলদস্যু বাহিনী গঠন করে জেলে অপহরণ এবং মুক্তিপণ বাণিজ্যে জড়িয়ে পরে। নিহত রানার মৃতদেহ পাথরঘাটা থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

পাথরঘাটা থানার ওসি মোল্লা খবির আহম্মেদ নিহত জলদস্যুর মরদেহ থানায় হস্তান্তরের কথা স্বীকার করেছেন।

আরও পড়ুন :

জেএইচ