বাগেরহাটে নিখোঁজের ছয়দিন পর কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার, আটক দুই

প্রকাশ | ১৯ আগস্ট ২০১৮, ২৩:৩৯ | আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ২৩:৪৩

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের চিতলমারীতে নিখোঁজের ছয়দিন পর সবুজ বিশ্বাস নামের এক কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এছাড়া এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সাব্বির খান এবং লিমন খান নামের দুই স্কুলছাত্রকে আটক করা হয়েছে।

রোববার(১৯ আগস্ট ২০১৮) দুপুরে চিতলমারী থানার পাশের জলাশয়ের কচুরিপনার মধ্য থেকে সবুজের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সবুজ চিতলমারীর কাটাখালী গ্রামের পরিতোষ বিশ্বাসের ছেলে। তিনি চিতলমারী শেরে বাংলা ডিগ্রি কলেজের কারিগরি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

-----------------------------------------------------
আরও পড়ুন : পদ্মার ভাঙনে নড়িয়া-সুরেশ্বরের বিস্তীর্ণ এলাকা বিলীন, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন
-----------------------------------------------------

চিতলমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) অনুকূল বিশ্বাস জানান, সবুজ গত ১৩ আগস্ট নিখোঁজ হন। এই ঘটনায় তার পরিবার থানায় অভিযোগ করে। এর ভিত্তিতে শনিবার রাতে পুলিশ তার মোটরসাইকেলসহ  সাব্বির ও লিমন নামের দুই স্কুলছাত্রকে গোপালগঞ্জ থেকে আটক করে। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী রোববার দুপুরে সবুজের মরদেহ উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

তিনি আরও জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সবুজকে হত্যা করেছে বলে সাব্বির ও লিমন পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। চিতলমারী উপজেলার আড়ুয়াবর্ণি চরপাড়া গ্রামের সালাম খানের ছেলে সাব্বির এবং হাসমত খানের ছেলে লিমন। তারা চিতলমারী এসএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম ও দশম শ্রেণির ছাত্র।

সাব্বির ও লিমনের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতির কথাও জানান তিনি।

কে/জেএইচ