মেহেরপুরে বড় ছাগলের চেয়ে ছোট ছাগলের দাম বেশি

প্রকাশ | ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১৪:৪৬ | আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১৫:২১

মেহেরপুর প্রতিনিধি

মেহেরপুরে এবারের কুরবানির পশু হাটগুলোতে বড় ছাগলের চেয়ে ছোট ছাগলের চাহিদাই বেশি। 

গতকাল শনিবার বারাদীতে সবচেয়ে বড় ছাগল হাটে দেখা গেছে একই চিত্র। ছোট ছাগল মালিকরা স্বস্তিতে থাকলেও বিপাকে পড়েছেন বড় আকারের ছাগল মালিক ও ব্যাপারীরা। 

জানা গেছে, সপ্তাহের প্রতি শনিবার ও বুধবার বারাদী বাজারে ছাগল হাট বসে। মাস খানেক আগ থেকেই অল্প করে কুরবানির ছাগল বেচা-কেনা শুরু হয়। গত সপ্তাহের দু’টি হাটে ব্যাপক পরিমাণ কেনা-বেচা হয়। গতকাল শনিবার বিভিন্ন আকারের ছাগলের ব্যাপক আমদানি থাকলেও হতাশায় ডুবেছেন বড় ছাগল মালিকরা। 

চুয়াডাঙ্গার বড় হাপানিয়া গ্রামের ছাগল ব্যবসায়ী সাহাবুল ইসলাম একটি বড় ছাগল হাটে তুলে ছিলেন। এই ছাগলের দিকে উৎসুক মানুষের দৃষ্টি থাকলেও ব্যাপারী বা সাধারণ ক্রেতাদের দৃষ্টি ছিল না। 

সাহাবুল ইসলাম বলেন, বড় গাংনী থেকে ছাগলটি কয়েকদিন আগে কিনেছিলাম। ছাগলটির আনুমানিক মাংস ধরা হয়েছে ৪৫-৪৭ কেজি। যেকোনও মানুষের দৃষ্টি আটকায় এই রাম জাতের ছাগল। কিন্তু খদ্দের ছিল একেবারেই কম। কুরবানির কেনাবেচার একেবারেই শেষ পর্যায়ে তাই ২৮ হাজার টাকায় বিক্রি করে দিয়েছি। 

-----------------------------------------------------
আরও পড়ুন : নাটোরে ব্যবসায়ী হত্যায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড
-----------------------------------------------------

হাট ঘুরে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এ অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী ব্লাক বেঙ্গল জাতের ছাগলের চাহিদাই বেশি। খেতে অত্যন্ত সু-স্বাদু এই ছাগলের মাংসের প্রতি ভোক্তাদের বিশেষ নজর রয়েছে। যার প্রভাব দেখা গেছে ছাগলের হাটেও। 

গতকালের হাটে ছোট আকারের ছাগল ব্যাপক পরিমাণেই বিক্রি হয়েছে। বিক্রেতারা দাম পেয়েছে কাঙ্ক্ষিত। ১২-১৫ কেজি মাংস হতে পারে এমন ছাগল বেশি পরিমাণে বিক্রি হয়েছে বলে জানা গেছে। 

হাট ইজারাদার সূত্রে জানা গেছে, কুরবানির হাটগুলোতে ৫শ’ থেকে ১ হাজার ছাগল বেচা-কেনা হচ্ছে। আগামী বুধবার পবিত্র ঈদুল আজহার দিনে হাট বসবে না। তাই এক দিন আগে আগামী মঙ্গলবার বিশেষ হাট বসানো হচ্ছে। এদিনও ছাগল বেচা-কেনা হবে।

আরও পড়ুন : 

এসএস