• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

শরীয়তপুরে পরিচ্ছন্নতা কর্মী নিয়োগ বাতিলের দাবিতে হরিজনদের ঝাড়ু মিছিল

শরীয়তপুর প্রতিনিধি
|  ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৮:২৯ | আপডেট : ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৯:১৮
শরীয়তপুরে পরিচ্ছন্নতা কর্মী নিয়োগ বাতিলের দাবিতে ঝাড়ু মিছিল করেছে হরিজন সম্প্রদায়ের লোকজন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে হরিজন ঐক্যপরিষদ জেলা শাখার উদ্যোগে এই মিছিলটি অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহেরের বিরুদ্ধে এই ঝাড়ু মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

------------------------------------------------------------------
আরও পড়ুন  : বাসচাপায় স্কুলছাত্রীসহ ৩ জনের মৃত্যু, চালক আটক
------------------------------------------------------------------

মিছিলটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়,  গেলো পাঁচ ডিসেম্বর এক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ১৩ আগস্ট চারজন পরিচ্ছন্নতা কর্মী নিয়োগ দেয় জেলা প্রশাসন। এ নিয়োগে মিথ্যা ও ভুয়া পরিচয়পত্র দিয়ে পাবনা জেলার লোককে চাকরি দেয়া হয়। এ বিষয়ে জানতে পেরে শরীয়তপুরের হরিজন সম্প্রদায় ফুঁসে উঠে। হরিজনরা ১৪ আগস্ট রাতে জেলা প্রশাসকের চলাচলের রাস্তায় ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মল ঢেলে প্রতিবাদ জানায়। এরপর গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে ঝাড়ু মিছিল বের করে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন হরিজন ঐক্যপরিষদ শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি শ্রী দর্পণ চন্দ্র দাস,  তরুণ জমাদার,  মানিক জমাদার,  রতন জমাদার,  সুমন জমাদার,  টুবেল জমাদার,  বিউটি রানী দাস,  ছায়ারানী দাস, লতা রানী দাস ও নিশি রানী দাস।

তাদের দাবি স্থানীয় হরিজনদের কোটার চাকরিবিধি মেনে শরীয়তপুরস্থ হরিজনদের মধ্য থেকে নিয়োগ দিতে হবে। অন্যথায় তারা আন্দোলন ও বিক্ষোভ চালিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয়। এরপর হরিজনরা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোতাকাব্বীর আহম্মেদের নিকট নিয়োগ বাতিলের দাবিতে স্মারকলিপি দেয়।

এ ব্যাপারে হরিজন ঐক্য পরিষদের শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি শ্রী দর্পন চন্দ্র দাস বলেন,  জেলা প্রশাসক কাজী আবু তাহের আমাদের সম্প্রদায়ের লোক নিয়োগ না করে টাকার বিনিময়ে পাবনা জেলা থেকে লোক এনে নিয়োগ দিয়েছে। এ নিয়োগ বাতিল করতে হবে। অন্যথায় আমরা কঠোর আন্দোলনে যাব।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মোতাকাব্বীর আহম্মেদ বলেন,  হরিজনদের নিজেদের পরিবারের মধ্য থেকে পরিচ্ছন্নতা কর্মী নিয়োগ দেয়ার দাবি নিয়ে আমার কাছে এসেছিল। তারা বিক্ষোভ মিছিল করেনি। 


আরও পড়ুন :

 

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়