• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

সিলেট সিটিতে ফ্যাক্টর ‘ময়মনসিংহের ভোট’

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট
|  ২৮ জুলাই ২০১৮, ১৫:৩৭ | আপডেট : ২৮ জুলাই ২০১৮, ১৬:০০
ময়মনসিংহ অঞ্চলের মানুষ যারা সিলেট মহানগরীতে বাস করেন তাদের ভোট একটা ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়িয়েছে সিলেট সিটি নির্বাচনে। 

জানা যায়, সিলেটে প্রধান দুই দলের মেয়র প্রার্থী আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমদ কামরান এবং বিএনপির আরিফুল হক চৌধুরী দুজনেই ময়মনসিংহের জামাই।  

আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমদ কামরানের স্ত্রী আসমা কামরানের বাবার বাড়ি বৃহত্তর ময়মনসিংহের টাঙ্গাইল জেলার বাসাইল উপজেলার ময়তা গ্রামে। বাবার চাকরিসূত্রে শিশুকাল থেকেই সিলেটে আছেন তিনি। এখন সিলেটেই তার সব কিছু। 

বিএনপির আরিফুল হক চৌধুরীর স্ত্রী শ্যামা হকের বাড়ি ময়মনসিংহ শহরের নওমহালে। বিবাহসূত্রে ১৯৯১ সাল থেকে সিলেটেই তার বাড়িঘর। 

আসমা কামরান এবং শ্যামা হক এর কারণে বিগত সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) নির্বাচনে ময়মনসিংহের ভোট প্রভাব ফেলেছিল। পর্যবেক্ষকরা ধারনা করছেন এবারের সিসিক নির্বাচনেও থাকবে এর প্রভাব।

জানা যায়, সিলেট মহানগরীতে ময়মনসিংহ অঞ্চলের প্রায় ৬৫ হাজার মানুষ বসবাস করছেন। তারমধ্যে প্রায় ৪০-৪৫ হাজার ভোটার রয়েছেন সিসিক এলাকায়। নির্বাচনে জয়-পরাজয় নির্ধারণে এই বিপুল সংখ্যক ভোট প্রভাবক হিসেবে কাজ করবে। আর তাই নিজেদের শ্বশুর বাড়ির অঞ্চলের এসব ভোট টানতে তৎপর আরিফ ও কামরান।

সিলেটে বসবাসরত ময়মনসিংহ অঞ্চলের লোকদের সংগঠন হচ্ছে ‘সিলেটস্থ বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমিতি’। আসমা কামরান ও শ্যামা হক উভয়েই এই সমিতির উপদেষ্টা পদে আছেন।

সিসিকের প্রথম দুই নির্বাচনে সিলেটে বসবাসরত ময়মনসিংহ অঞ্চলের মানুষদের ভোট যায় কামরানের বাক্সে। কিন্তু গত নির্বাচনে বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরী প্রথমবারের মতো মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় ওই অঞ্চলের ভোট দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে। এবারও ময়মনসিংহ অঞ্চলের ভোট দুইভাগে ভাগ হবে।

------------------------------------------------------
আরও পড়ুন : সিলেট সিটি নির্বাচনে জাতীয় পার্টির সমর্থন পেলো আ.লীগ
-------------------------------------------------------

সিলেট নগরীতে বসবাসরত ময়মনসিংহ অঞ্চলের মানুষদের ভোট কামরানের পক্ষে টানতে সক্রিয় আসমা কামরান। একইভাবে 
আরিফের পক্ষে ভোট টানতে তৎপর শ্যামা হক। তারা উভয়েই নিজ নিজ স্বামীর পক্ষে নানা যুক্তি দেখিয়ে, স্বামীর পক্ষ থেকে নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট টানার চেষ্টা করছেন।দুজনেই বাবার বাড়ির অঞ্চলের ভোট নিজেদের স্বামীর পক্ষে আসার ব্যাপারে আশাবাদী।

এ ব্যাপারে আসমা কামরান আরটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘সিলেটে বসবাসকারী বৃহত্তর ময়মনসিংহের বাসিন্দাদের ভোট অতীতে কামরানের পক্ষে এসেছে, এবারও আসবে। কারণ, কামরান সবসময় তাদের পাশে ছিল।’

অপরদিকে আর শ্যামা হক বলেন, ‘গত নির্বাচনেও ময়মনসিংহ অঞ্চলের মানুষ আরিফকে ভোট দিয়েছেন। এবারও তারা আরিফের সঙ্গে আছেন।’

শুধু আসমা কামরান ও শ্যামা হকই নয়, কামরান ও আরিফ নিজেরাও ময়মনসিংহ অঞ্চলের ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ছুটছেন। এজন্য সিলেটস্থ বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমিতির নেতৃবৃন্দের সঙ্গেও তারা যোগাযোগ রাখছেন।

ময়মনসিংহ সমিতির সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুল আলম বাবলু আরটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘সিলেট সিটি নির্বাচনে প্রধান দুই মেয়র প্রার্থী, কামরান ও আরিফ ময়মনসিংহ অঞ্চলের জামাই। তাই সিলেট নগরীতে বসবাসরত ময়মনসিংহ অঞ্চলের মানুষদের ভোট ভাগাভাগি হবে। তবে কারো ভাগে বেশি যাবে নাকি সমান সমান তা এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না।

এসএস 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়