রাজশাহীকে মেগাসিটি করা হবে: লিটন

প্রকাশ | ১১ জুলাই ২০১৮, ১০:২৯ | আপডেট: ১১ জুলাই ২০১৮, ১২:১৮

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী

‘রাজশাহীকে আবারও বদলে দেই’ এই স্লোগান নিয়ে রাজশাহীর মানুষের সেবক হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করে রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন তার নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করেছেন। ইশতেহারে তিনি এক লাখ মানুষের কর্মসংস্থান, পরিবেশ, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও যোগাযোগ ব্যবস্থায় অগ্রাধিকার দিয়ে তিনি নির্বাচনী প্রচারণার কার্যক্রম শুরু করেছেন।

গতকাল মঙ্গলবার রাজশাহী নির্বাচন কমিশনে প্রতীক বরাদ্দের পরে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর কুমারপাড়া মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন ১৫ দফা নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করেন।

সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে রাজশাহীর উন্নয়নের পরিকল্পনার কথা তুলে ধরে সবার সমর্থন ও দোয়া চান এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

------------------------------------------------
আরও পড়ুন : কুমিল্লায় কলেজছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা
 ------------------------------------------------

এরপর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আবদুল খালেক দলীয় প্রার্থী এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনের ১৫ দফার নির্বাচনী ইশতেহার পাঠ করেন।

লিটনের নির্বাচনী ইশতেহারে শিল্প কারখানার মাধ্যমে ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করাকে প্রাধান্য দিয়ে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, আবাসান, অবকাঠামো, পরিবেশ, যোগাযোগ, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে উন্নয়ন, নারীর উন্নয়ন, মুক্তিযুদ্ধ ও ঐতিহ্য সংরক্ষণ, সিটি করপোরেশন স্বনির্ভরতা তৈরি, হোল্ডিং টেক্স সহনীয় পর্যায়ে রাখাসহ আগামীর রাজশাহী মহানগরীকে মেগাসিটিতে পরিণত করার লক্ষ্যে বিভিন্ন ক্ষেত্রে উন্নয়নমূলক কাজের পরিকল্পনার নানা দিক তুলে ধরা হয়েছে।

ইশতেহার ঘোষণার পর নগরীর সাহেববাজার এলাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা শুরু করেন লিটন। এসময় তিনি গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করে আগামীদিনে নগরীবাসীর সেবা করার সুযোগ চেয়ে ৩০ জুলাই নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট চান।

এসময় মেয়র প্রার্থী লিটন ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ভাষাসৈনিক মোশাররফ হোসেন আখুঞ্জি, আবুল হোসেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য সাইদুর রহমান খান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সাব্বির সাত্তার তপু, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার প্রমুখ।

 

আরও পড়ুন : 

জেবি/পি