• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

সিলেট সিটি নির্বাচন

আরিফকে নিয়ে দলে মান-অভিমান, ১২ নেতাকে ঢাকায় তলব

রাজ্জাক রুনু, সিলেট
|  ২৭ জুন ২০১৮, ১৪:৫৫ | আপডেট : ২৭ জুন ২০১৮, ১৭:০৯
সিলেট সিটি নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকার প্রার্থী যখন সিলেটের অলিগলি, পাড়া-মহল্লায় চষে বেড়াচ্ছেন, তখন বিএনপি ব্যস্ত ছিল নিজেদের ঘর গোছাতে। তবে শেষ পর্যন্ত বিএনপির দেন-দরবার মিটতে যাচ্ছে।

সিসিক নির্বাচনে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বিএনপি প্রার্থী হিসেবে বর্তমান সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ধানের শীষ প্রতীক পেতে যাচ্ছেন বলে একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়।

আজ বুধবার সিলেট থেকে বিএনপির এক ডজন নেতাকে ঢাকায় জরুরি তলব করা হয়েছে।

সূত্রটি জানায়, আজ বুধবার সিলেটের ১২ জন নেতাকে ঢাকায়  ডেকেছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দুপুরের মধ্যেই তাদেরকে ঢাকায় থাকার কথা জানানো হয়েছে।

সিলেট থেকে যাওয়া এই ১২ জনের তালিকায় সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ শীর্ষ নেতৃবৃন্দ রয়েছেন।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: অবশেষে মনোনয়ন পেলেন আরিফুল
--------------------------------------------------------

এদিকে ঢাকায় তলবের বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন আরটিভি অনলাইনকে জানান, সম্ভবত সিটি নির্বাচনে প্রার্থিতার ব্যাপারে আলোচনা করা হতে পারে।

বিএনপির একটি সূত্র জানায়, সিলেট থেকে যাওয়া ১২ নেতার হাত দিয়েই দ্বিতীয়বারের মতো সিটি নির্বাচনের টিকিট তুলে দেয়া হতে পারে আরিফুল হক চৌধুরীর হাতে। এসময় আরিফের সমর্থনে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার নির্দেশনাও দেয়া হতে পারে।

অন্যদিকে বিএনপির জোটের অন্তর্ভুক্ত জামায়াত ও খেলাফত মজলিসও সিসিক নির্বাচনে নিজেদের প্রার্থী দিতে প্রস্তুত। দুইটি প্রধান ইসলামী রাজনৈতিক সংগঠনের প্রার্থী এহসানুল মাহবুব জোবায়ের ও কে এম আব্দুল্লাহ আল মামুন এখনও মাঠে রয়েছেন।

তবে বুধবার বিকেলে ঢাকায় ২০ দলীয় ঐক্যজোটেরও বৈঠক রয়েছে। ওই বৈঠকে সিসিক মেয়র প্রার্থী চূড়ান্ত করা হতে পারে-এমনটি জানিয়েছেন খেলাফত মজলিস সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক কে এম আব্দুল্লাহ আল মামুনও।

সিলেট সিটি নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য আরিফুল হককে কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না স্থানীয় বিএনপির একাধিক শীর্ষ নেতা। এতদিন দলের মধ্যে বিরোধের কারণে আটকে ছিল বিএনপির চূড়ান্ত মনোনয়ন।

জানা যায়, তফসিল ঘোষণার আগে থেকেই দলে বিরোধ ওঠেছিল তুঙ্গে। স্থানীয় বিএনপির একাধিক শীর্ষ নেতা কেন্দ্রের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন আরিফুল হকের বিরুদ্ধে। আরিফ ছাড়া বিএনপির যে কাউকে মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

কিন্তু আরিফ-অনুসারী ও সাধারণ নেতাকর্মীরা বলছেন, দলের মধ্যে একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী থাকলেও সাধারণ ভোটারের কাছে আরিফই সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। বর্তমান মেয়র হিসেবে বেশ কিছু উন্নয়নমূলক কাজ করে তিনি নগরবাসীর কাছে গ্রহণযোগ্যতা তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন।

আরও পড়ুন: 

এসএস/এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়