• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

মৌলভীবাজারে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৪০ হাজার পরিবার, ৫ জনের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, মৌলভীবাজার
|  ১৮ জুন ২০১৮, ১৩:৫১ | আপডেট : ১৮ জুন ২০১৮, ১৪:২০
উজান থেকে নেমে আসা পানি ও টানা বৃষ্টিতে মৌলভীবাজারে বন্যায় ৩ লাখের উপর মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় দিন কাটাচ্ছে।  
বন্যায় মৌলভীবাজার সদর, কুলাউড়া, কমলগঞ্জ ও রাজনগরসহ চারটি উপজেলার ৩০টি ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভায় প্রায় ৪০ হাজার ২০০ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পানিতে ডুবে পাঁচজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

জেলায় গত ৪ দিনে ৬ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এখন পর্যন্ত নিখোঁজ আছেন আরও ২ জন বলে নিশ্চিত করেছে প্রশাসন।

জেলা প্রশাসক মো. তোফায়েল ইসলাম এসব তথ্য জানান।
তিনি জানান, মৌলভীবাজারে বন্যায় চার উপজেলার প্রায় ৪০ হাজার ২০০ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নষ্ট হয়েছে দুই হাজার ৯৬০ হেক্টর আউশ ধান।

এদিকে জেলায় মনু ও ধলাই নদীর পানি বৃদ্ধির কারণে বন্যা প্রতিরক্ষা বাঁধের ২৫ স্থানে ভাঙন দেখা দিয়েছে। পানিবন্দি মানুষদের উদ্ধার করে ৫০টি আশ্রয়কেন্দ্রে নেয়া হয়েছে। সেখানে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবীদের মাধ্যমে খাবার রান্না করে বিতরণ করা হচ্ছে।

জেলা প্রশাসক জানান, সেনাবাহিনীর চারটি টিম বন্যাদুর্গত এলাকায় কাজ করছে। তারা পানিবন্দিদের উদ্ধারে ১৮টি স্পিডবোট ব্যবহার করছে। সিভিল সার্জনের নেতৃত্বে ৭৪টি মেডিকেল টিম বন্যাকবলিত এলাকায় কাজ করছে।  রেডক্রিসেন্টসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থাও কাজ করছে। 

স্থানীয়রা জানান, রাজনগরের কদমহাটায় সড়কে পানি উঠায় জেলার সঙ্গে রাজনগর, জুড়ি, কুলাউড়া, বড়লেখা উপজেলা সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন আছে। অন্যদিকে কমলগঞ্জ উপজেলার সঙ্গে সংযোগ সড়কের কয়েকটি জায়গায় পানি উঠায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। সদর উপজেলার পৌর এলাকায় পানি প্রবেশ করে পানিতে ডুবে যাওয়ায় সিলেটের সাথে যোগাযোগও বিচ্ছিন্ন।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, ধলাই নদীর পানি স্বাভাবিক অবস্থায় আছে এবং মনু নদের পানি বিপদসীমার ১৮০ সেন্টিমিটার থেকে কমে ১৫৪ সেন্টিমিটারে পৌঁছেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রনেন্দ্র শংকর চক্রবর্তী পার্থ জানান, ধলাই নদী ও মনু নদের পানি দ্রুত কমছে। আশা করি লোকালয় থেকে দ্রুত পানি নেমে যাবে।

আরও পড়ুন :

এসএস 

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়