• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

নাক-কান-চোখ বেয়ে অনবরত রক্ত ঝরে জিনাতের

বরিশাল সংবাদদাতা
|  ০৪ মে ২০১৮, ১২:০৯
আর দশটা মেয়ের মতোই স্বাভাবিক ছিল জিনাতের জীবন। প্রাণবন্ত সেই জিনাতের হঠাৎ পেয়ে বসেছে কঠিন এক রোগ। যে রোগ মেয়েটির মুখের হাসি কেড়ে নিয়েছে। জিনাত বরিশালের পটুয়াখালীর কলাপাড়ার পাঁচধুনিয়া গ্রামের মামুন হোসেনের মেয়ে।

২০১৬ সালের আগস্ট মাসে জিনাতের ডান চোখ দিয়ে কোনো কারণ ছাড়াই রক্ত ঝরতে শুরু করে। ক্রমেই দুই চোখ, নাক, কান এমনকি নাভি দিয়েও ঝরতে শুরু করে রক্ত। দিনে তিন থেকে চার কিংবা তারও বেশি বার ঝরে রক্ত। রক্তক্ষরণের একপর্যায়ে জ্ঞান হারায় সে।

নারায়ণগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী জিনাত এই অসহ্য যন্ত্রণা থেকে মুক্তি চায়। ফিরে পেতে চায় স্বাভাবিক জীবন।

বিরল এ রোগের নাম হ্যামিল্যাক্রিয়া। এ রোগে আক্রান্ত পৃথিবীতে মোট ১৪ জন রোগীর মধ্যে বাংলাদেশের জিনাত একজন। বিভিন্ন রোগের উপসর্গ বহন করে এ রোগটি। সাধারণত ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণ, টিউমার কিংবা আঘাতজনিত কারণে এ রোগ হতে পারে। রোগটি বিরল হওয়ায় এর চিকিৎসা পদ্ধতিও বেশ জটিল।

জিনাতের বাবা মামুন হোসেন জানান, জিনাতের অবস্থা দিনকে দিন অবনতির দিকে যাচ্ছে। তার মেয়ের এই কষ্ট তিনি আর সহ্য করতে পারছেন না।

দুই বছর ধরে মেয়ের চিকিৎসার কোনো ত্রুটি করেননি তিনি। কিন্তু কোনো চিকিৎসাই ফলপ্রসূ হচ্ছে না, কমছে না জিনাতের কষ্ট। এদিকে তার একার পক্ষে মেয়ের চিকিৎসা চালিয়ে নেয়াও সম্ভব হয়ে উঠছে না।

মামুন আরও বলেন, সবাই এগিয়ে এলে হয়তো আমার মেয়েটাকে বাচাঁতে পারব। বিত্তবান মানুষের পাশাপাশি সরকারি হস্তক্ষেপও কামনা করেন তিনি।

জেবি/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়