• ঢাকা শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৬ আশ্বিন ১৪২৫

পদ্মা-মেঘনায় ইলিশ ধরতে নেমেছেন জেলেরা

চাঁদপুর প্রতিনিধি
|  ০১ মে ২০১৮, ১০:৪৯ | আপডেট : ০১ মে ২০১৮, ১১:০৪
দুই মাস বন্ধ থাকার পর আজ মঙ্গলবার থেকে চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনা নদীতে ইলিশসহ সব ধরনের মাছ ধরতে নেমেছেন জেলেরা। গতকাল সোমবার অভয়াশ্রম কর্মসূচি শেষ হয়েছে। তবে কারেন্ট জাল ছাড়া সকল প্রকার জাল দিয়ে মাছ ধরতে পারবেন জেলেরা।

সরকার ইলিশ সম্পদ উন্নয়নে পদ্মা-মেঘনা নদীতে মার্চ-এপ্রিল দুই মাস ইলিশ মাছসহ সকল ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছিল। নিষিদ্ধ এলাকার মধ্যে ছিল চাঁদপুরের মতলব উত্তর ষাটনল থেকে লক্ষ্মীপুরের চর আলেকজান্ডার পর্যন্ত একশ’ কিলোমিটার এলাকা।

চাঁদপুরের মেঘনায় মাছ ধরার কাজে নিয়োজিত রয়েছেন ৪৫ হাজার নয়শ’৭৮ জন জেলে। তাদের মধ্যে ৪১ হাজার একশ’ ৮৯ জন জেলেকে সরকার নিষিদ্ধ সময়ে ৪০ কেজি করে চাল দিয়েছে।

নগদ অর্থ উপার্জনের ব্যবস্থা না থাকলেও চাঁদপুরের জেলেরা নিষিদ্ধ সময়ে নদীতে মাছ ধরতে নামেননি। তারা এই সময়টাতে নগদ অর্থ আর বিকল্প কর্মসংস্থানের দাবি জানিয়েছেন।

চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকী আরটিভি অনলাইনকে জানান, সরকার ইলিশ সম্পদ উন্নয়নে ও জাটকা নিধন প্রতিরোধে পদ্মা-মেঘনা নদীতে মার্চ-এপ্রিল দুই মাস ইলিশ মাছসহ সব ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছিল।

এসময় অধিকাংশ জেলেরাই এই নিষেধাজ্ঞা মান্য করেছে। তবে জেলা টাস্ক ফোর্স, কোস্টগার্ড, পুলিশ মৎস্য বিভাগের সহযোগিতায় মাছ ধরার সময় একশ’ ৫১ জন জেলেকে আটক করে তাদের নামে মামলা দিয়েছে।

গতকাল সোমবার এই নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হওয়ায় আজ থেকে আবার জেলেরা পদ্মা-মেঘনা নদীতে মাছ ধরতে নেমেছেন। তবে কেউ কারেন্ট জাল দিয়ে মাছ ধরতে পারবেন না।

চাঁদপুর সদর উপজেলার নীলকমল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন খান আরটিভি অনলাইনকে জানান, সরকার যথাসময়ে জেলেদের খাদ্য সহায়তা দিয়েছে। তবে চাঁদপুরের জেলেরা নদীতে না নামলেও বহিরাগত জেলেরা নিষিদ্ধ সময় নদীতে নেমে জাটকা নিধন করেছে।

২০০৬ সাল থেকে মার্চ-এপ্রিল দুই মাস চাঁদপুরের বিস্তীর্ণ নদী সীমাকে ইলিশের অভয়াশ্রম ঘোষণা করে জাটকা রক্ষা কর্মসূচি পালিত হচ্ছে।

গেল বছর দেশে ২২ হাজার সাতশ’ মেট্রিক টন ইলিশ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে ৩৫ হাজার চারশ’ ২৭ মেট্রিক টন অর্জিত হয়েছে।

এবার জেলেরা জাটকা নিধন করতে পারেনি। ফলে আগামী বছর ইলিশের উৎপাদন অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবার সম্ভাবনা রয়েছে।

জেবি/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়