• ঢাকা সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫

ঘন কুয়াশায় নদী পথে ফেরি পারাপার বন্ধ

আরটিভি অনলাইন
|  ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ০৮:৫১ | আপডেট : ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৩:২৩
ঘন কুয়াশায় বন্ধ রয়েছে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটের ফেরি চলাচল। মাঝ পদ্মায় যানবাহনসহ আটকা পড়েছে ছয়টি ফেরি। 

শনিবার ভোর সাড়ে চারটা থেকে ফেরি চলাচল সাময়িক বন্ধ রয়েছে। পাটুরিয়া ঘাটে সাতটি ও দৌলতদিয়া ঘাটে তিনটি ফেরি নোঙর করে আছে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) পাটুরিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মহিউদ্দিন রাসেল ফেরি বন্ধ থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

--------------------------------------------------------
আরও পড়ুন: স্কুলে মা সমাবেশ
--------------------------------------------------------

তিনি জানান, ভোর থেকেই ঘন কুয়াশায় ঢেকে যায় পদ্মা নদী। বিভিন্ন ফেরিতে ফগ লাইট থাকলেও তা কুয়াশার ঘনত্ব ভেদ করতে পারছে না। কুয়াশার মাত্রা বেশি হওয়ায় নৌরুটে দুর্ঘটনা এড়াতে ভোর সাড়ে চারটা থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। মাঝ নদীতে যানবাহন ও যাত্রী নিয়ে আটকা পড়েছে ছয়টি ফেরি। 

তিনি আরো জানান, পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায় সাতটি এবং দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় তিনটি ফেরি যানবাহন ও যাত্রী বোঝাই করে ঘাটে নোঙর করে আছে। কুয়াশার ঘনত্ব কমে আসলে ফেরি চলাচল শুরু হবে।

এদিকে ঘন কুয়াশার কারণে মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌপথে লঞ্চ, স্পিডবোটসহ সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রেখেছে কর্তৃপক্ষ।

শনিবার রাত ৩টা থেকে ওই নৌপথে লঞ্চ, স্পিডবোটসহ সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রাখা হয়।

বিআইডব্লিউটিসি’র কাঁঠালবাড়ী ঘাট সূত্রে জানা গেছে, রাতে কুয়াশার পরতে থাকলে পদ্মার দিক নির্দেশনামূলক বাতি অস্পষ্ট হয়ে আসলে দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য বন্ধ রাখা হয় ফেরি চলাচল। রাত থেকে কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাটে পরিবহন লোড করা অবস্থায় ঘাটে রয়েছে দু'টি ফেরি। এছাড়াও পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে দুই শতাধিক পণ্যবাহী পরিবহন ও অর্ধশত নৈশ কোচ। রাতে মাঝ পদ্মায় নোঙর করে আছে চলাচলরত বেশ কয়েকটি ফেরি।

বিআইডব্লিউটিসি’র কাঁঠালবাড়ী ঘাটের ব্যবস্থাপক আব্দুস সালাম মিয়া জানান, ঘন কুয়াশার কারণে মধ্য রাত থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। ঘাট এলাকায় কিছুটা যানজট রয়েছে। কুয়াশা কেটে গেলে আবার স্বাভাবিক হবে।

এদিকে কাঁঠালবাড়ী লঞ্চ ও স্পিডবোট ঘাট সূত্র জানায়, রোববার (১৪ জানুয়ারি) সকাল থেকে কুয়াশা মাত্রাতিরিক্ত থাকায় লঞ্চ ও স্পিডবোট ঘাট ছেড়ে যায়নি।

এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়