• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

ঝুঁকিপূর্ণ ৪ বেইলি সেতু, বিপাকে পরিবহন মালিক ও স্থানীয়রা

নীলফামারী প্রতিনিধি
|  ২১ অক্টোবর ২০১৭, ১৩:২২ | আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০১৭, ১৩:৩২
নীলফামারী-জলঢাকা সড়কে ঝুঁকিপূর্ণ চারটি বেইলি সেতু নতুন করে নির্মাণ না করায় এতে চলাচল করতে পারছে না ভারি যানবাহন। ফলে বিপাকে পড়ছেন পরিবহন মালিক ও স্থানীয়রা। এ অবস্থায় পণ্যবাহী ট্রাকগুলোকে ৪০ কিলোমিটার পথ ঘুরে গন্তব্যে যেতে হচ্ছে।  বেড়ে চলছে নিত্যপণ্যের দাম।

নীলফামারী-জলঢাকা সড়কে ১৯৮৮ সালে তৈরি করা হয় চারটি বেইলি সেতু ও কয়েকটি কালভার্ট। কিন্তু বন্যা ও সময়ের আবর্তে চারটি সেতুর পাটাতন ও রেলিং ভেঙে গেছে। ফলে সেতুতে যান পারাপারে প্রায়ই ঘটে দুর্ঘটনা। নিষিদ্ধ করা হয়েছে পাঁচ টনের বেশি পণ্যবাহী পরিবহন চলাচল। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন পরিবহন মালিক ও স্থানীয়রা।

সেতুগুলো নতুনভাবে নির্মাণে গেল বছরের ৯ অক্টোবর এনসিইএল নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ দেয়া হয়। তাদেরকে আগামী বছরের ৮ এপ্রিলের মধ্যে সেতুগুলো নির্মাণ কাজ শেষের নির্দেশনা দেয়া হলেও কাজের অগ্রগতি হয়েছে ১৫ ভাগ। ফলে ৪০ কিলোমিটার পথ ঘুরতে হচ্ছে মালবাহী ট্রাকগুলোকে। এতে পরিবহন খরচ বাড়ায় বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম।

নির্মাণ কাজের অগ্রগতি অনেক কম হওয়ায় কার্যাদেশ বাতিল চেয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে সুপারিশ করেছেন জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী।

জেলা সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এ কে এম হামিদুল ইসলাম আরটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত সময়ে কাজটি করতে পারবে কিনা এই বিষয়ে আমরা সন্দিহান। তাই ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব’।

এদিকে নীলফামারীর উন্নয়নে দ্রুত বেইলি সেতু  নির্মাণে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

 

জেবি

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়