• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

রোহিঙ্গাদের চলাচল বন্ধে কাঁটাতারের বেড়া দিচ্ছে মিয়ানমার

বান্দরবান প্রতিনিধি
|  ০৪ অক্টোবর ২০১৭, ১৩:১৩ | আপডেট : ০৪ অক্টোবর ২০১৭, ২০:০১
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের মিয়ানমার অংশে স্থলমাইন স্থাপনের পর এবার কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে রোহিঙ্গাদের চলাচলের পথ স্থায়ীভাবে বন্ধ করছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও বর্ডার গার্ড বিজিপি।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া লাখো রোহিঙ্গা যাতে মিয়ানমারে ফিরতে না পারে সেজন্য সীমান্তে নজরদারি বাড়াতে দেশটির পক্ষ থেকে বাসানো হয়েছে ওয়াচ টাওয়ার।

আন্তর্জাতিক চাপের মুখে দেশটির সরকার একদিকে রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়ার কথা বলছে। অন্যদিকে সীমান্তের বিভিন্ন স্থানে নির্মাণ করা হচ্ছে কাঁটাতারের বেড়া।  

এদিকে সীমান্তে জিরো পয়েন্টে স্থলমাইন পুঁতে রাখার পাশাপাশি বিজিপি ও সেনাবাহিনীর চলাচল বেড়ে যাওয়ায় ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। 

নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরী বলেন, এর আগে সীমান্তের যেসব জায়গায় বিজিপির দেখা মেলেনি সেসব জায়গাতেও তাদের সশস্ত্র উপস্থিতি দেখা যাচ্ছে। এতে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

অন্যদিকে গতকাল মঙ্গলবার নাইক্ষ্যংছড়ির চাকঢালা সীমান্তের জিরো লাইনে মাইন বিস্ফোরণে নূরুল ইসলাম (২২) নামে ফের এক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছেন। এ পর্যন্ত নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের তিনটি পয়েন্টে মাইন বিস্ফোরণে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গেলো ২৫ আগস্ট রাখাইনে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ার পর এখন পর্যন্ত প্রায় ৪ লাখ রোহিঙ্গা মুসলিম বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। রাখাইনে পুলিশের ৩০টি তল্লাশি চৌকি ও একটি সেনাক্যাম্পে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলায় ১২ পুলিশ নিহত হওয়ার পর ওই সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে।

এর আগে গেলো বছরের ৯ অক্টোবরের পর থেকে মিয়ানমারের আরকান রাজ্যে একইভাবে হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় প্রাণ ভয়ে পালিয়ে আসে প্রায় ৭০ হাজার রোহিঙ্গা। এরপর আন্তর্জাতিক মহল নানাভাবে চাপ সৃষ্টি করে মিয়ানমার সরকারের ওপর। কিন্তু এর কোনো তোয়াক্কা না করে আরকানে ফের সেনা মোতায়েন করে নির্যাতন শুরু করে তারা।

 

জেবি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়