• ঢাকা বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫

সাতক্ষীরায় কথিত বন্দুকযুদ্ধে ২ মাদক বিক্রেতা গুলিবিদ্ধ

অনলাইন ডেস্ক
|  ১২ জুলাই ২০১৬, ১০:৫০ | আপডেট : ১২ জুলাই ২০১৬, ১০:৫৪
সাতক্ষীরা সদর ও দেবহাটায় দুটি পৃথক ঘটনায় পুলিশের গুলিতে দুই যুবক আহত হয়েছেন।

গুলিবিদ্ধ দুই যুবক হলেন সাতক্ষীরা পৌর এলাকার মধুমোল্লারডাঙ্গির বিশ্বজিত সরকার (২০) ও দেবহাটার বালিয়াডাঙ্গার মো. নুরুজ্জামান ( ২৪) ।

পুলিশ জানিয়েছে তারা দুজনেই মাদক চোরাকারবারী। সোমবার মধ্যরাতে পুলিশের সাথে  পৃথক বন্দুকযুদ্ধে তারা গুলিবিদ্ধ হন। তবে পরিবারে পক্ষ থেকে বলায়, দুদিন আগে তাদের ধরে আনে পুলিশ। পরে তাদের মাদক কারবারী সাজিয়ে পায়ে গুলি করা হয়।

জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার উপ পরিদর্শক ( এসআই) কামাল হোসেন জানান, ইটাগাছা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই এমদাদ মাদক বেচাকেনার খবর পেয়ে একদল টহল পুলিশ নিয়ে গভীর রাতে সদর উপজেলার ইসলামপুরের বেজেরডাঙ্গায় গেলে সন্ত্রাসীরা তাদের লক্ষ্য করে বোমা মারে। জবাবে পুলিশ পাল্টা গুলি ছুড়লে একব্যক্তি আহত হন। আহত বিশ্বজিত সরকার একজন মাদক চোরাকারবারী। তার কাছ থেকে ১০০ পিস ইয়াবা ও কয়েক বোতল ফেনসিডিল জব্দ করা হয়েছে। এ সময় অন্যরা পালিয়ে যায়।

তার পরিবারের দাবি বিশ্বজিত সরকারকে রোববার সাতক্ষীরা বাস টার্মিনাল থেকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। তাকে ছাড়ানোর জন্য একাধিক সাংবাদিকের শরণাপন্ন হন তার মা সুষমা সরকার। থানায় জিডি করতে চাইলেও পুলিশতা নেয়নি।

কামাল হোসেন আরও জানান একই রাতে দেবহাটা থানার  এসআই নাজমুল আলম ও এসআই  মাসুদুজ্জামান মাদক বেচাকেনার গোপন সংবাদ পেয়ে পুস্পকাটি গ্রামের  ইটভাটার কাছে গেলে তাদের ওপর বোমা নিক্ষেপ করা হয়। পুলিশ পাল্টা গুলি ছুড়লে  এক যুবক গুলিবিদ্ধ হন। গুলিবিদ্ধ নুরুজ্জামানও একজন মাদক চোরাকারবারী। তার কাছ থেকে ভারতীয়  ফেনসিডিল ও মদ জব্দ করা হয়।

নুরুজ্জামানের বাবা আমিনুল ইসলাম জানান, তার ছেলেকে দুদিন আগে এসআই নাজমুল তার বাড়ি থেকে তুলে আনেন। তিনি আরও জানান, চেয়ারম্যান ইমাদুলের উসকানিতে তার ছেলেকে মাদক চোরাকারবারী সাজিয়ে পায়ে গুলি করেছে পুলিশ।

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়