close
ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৭ | ০৮ কার্তিক ১৪২৪

পাইলটের ভুলে বিয়ের দাওয়াতের হেলিকপ্টার কারাগারে!

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ১০ আগস্ট ২০১৭, ১৩:৩৪ | আপডেট : ১০ আগস্ট ২০১৭, ১৪:২৮
পাইলটের ভুলে বিয়ের দাওয়াতে যাওয়া হেলিকপ্টার আরোহী নিয়ে কারাগারে। বৃহস্পতিবার গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে এ ঘটনা ঘটে। জানালেন কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার বিকাশ রায়হান।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে কারা কমপ্লেক্সের আরপি গেটের কাছে হেলিকপ্টার অবতরণের এ ঘটনা ঘটে।

বিকাশ রায়হান বলেন, বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় হঠাৎ একটি বেসরকারি হেলিকপ্টার কাশিমপুর কারাগারের স্পর্শকাতর সীমানার ভেতরে অবতরণ করে। এসময় উড়োযানটি ২ মালয়েশিয়ানসহ তিনজনকে নামিয়ে দিয়ে উড়ে চলে যায়।

তিনি বলেন, হেলিকপ্টারটি ঠিক কী কারণে বা কোথা থেকে ওই তিনজনকে নামিয়ে দিয়ে গেলে তা জানার জন্য তিনজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

অবৈধভাবে হেলিকপ্টার অবতরণের ঘটনায় আটক তিনজনের মধ্যে ২ জন মালয়েশিয়ান ও একজন বাংলাদেশি নাগরিক। বাংলাদেশি নাগরিকের নাম বিল্লাল হোসেন। অন্য দুইজন তার স্ত্রী ও সন্তান। সীমানা প্রাচীরে অবতরণ করা হেলিকপ্টারটি মেঘনা গ্রুপের মেঘনা এভিয়েশনের।

প্রবাসী বিল্লাল হোসেন জানান, তিনি দীর্ঘদিন ধরে মালয়েশিয়ায় বাস করেন। তার স্ত্রীও মালয়েশীয়। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারযোগে কোনাবাড়ী আমবাগ এলাকায় এক আত্মীয়ের বিয়েতে যাচ্ছিলেন। পথে পাইলট ভুল করে কোনাবাড়ী কুদ্দুসনগর স্কুলের পরিবর্তে কারা কমপ্লেক্সের ভেতরের স্কুলের মাঠে অবতরণ করেন।

অন্যদিকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এর জেল সুপার সুব্রত কুমার বনিকও একই কথা জানান। তিনি বলেন, প্রবাসী বিল্লালের বাড়ি কুমিল্লার হোমনায়। তিনি মালয়েশিয়া প্রবাসী, পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে বিয়ের অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলেন। পাইলট ভুল করে কারা কমপ্লেক্সের অভ্যন্তরে স্কুলের মাঠে অবতরণ করে। পরে কারারক্ষীরা তাদের আটক করে।

 

এইচটি/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়