• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

এ মাসেই বাবরের যুক্তিতর্ক শেষ, তারপরেই রায়

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট
|  ২১ আগস্ট ২০১৮, ১১:০৬ | আপডেট : ২১ আগস্ট ২০১৮, ১৭:৩৯
২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের জনসভায় গ্রেনেড হামলার দুই মামলার বিচার এখন শেষ পর্যায়ে। আর মাত্র একজন আসামির পক্ষে যুক্তিতর্ক শেষ হলেই রায়ের তারিখ ঘোষণা করবেন আদালত। ইতোমধ্যেই রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তিতর্ক শেষ হয়েছে।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে গ্রেনেড হামলা হয়। আওয়ামী লীগ নেত্রী আইভি রহমানসহ নিহত হন ২৪ জন। আজ তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা সহ আহত হন অনেকে।

পরে ২০০৮ সালে সাবেক উপমন্ত্রী আব্দুস সালাম পিন্টু ও হরকাতুল জিহাদ নেতা মুফতি হান্নানসহ সহ ২২ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দেয় সিআইডি।

-------------------------------------------------------
আরও পড়ুন :বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২২ শিক্ষার্থীর সবাই মুক্ত
-------------------------------------------------------

কিন্তু ২০০৯ সালে আদালতের নির্দেশে মামলার অধিকতর তদন্ত শুরু হয়। এতে নতুন করে অভিযুক্ত হন বিএনপির শীর্ষ নেতা তারেক রহমান, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, সাবেক তিন আইজিপি, গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআই ও এনএসআইয়ের সাবেক শীর্ষ কর্তাসহ ৩০ জন।

আসামিদের মধ্যে লুৎফুজ্জামান বাবর, আব্দুস সালাম পিন্টু ও গোয়েন্দা সংস্থার দুই শীর্ষ কর্মকর্তাসহ ২৩ জন কারাগারে আটক। আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, মুফতি হান্নান ও শরীফ শাহেদুল আলম বিপুলের অন্য মামলায় ফাঁসি কার্যকর হওয়ায় তাদেরকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

এবিষয়ে সম্প্রতি আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার আসামি ৫২ জন। এর মধ্যে ১৮ জন পলাতক। এ মামলায় আদালতে ২২৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ হয়েছে। এছাড়া মামলার এজাহারে অভিযুক্ত আসামিদের প্রত্যেককে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। বিশেষ আদালতে চলা মামলায় এখন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরের যুক্তিতর্ক চলছে, এ মাসেই তার যুক্তিতর্ক শেষ হবে। এরপরই তা রায়ের জন্য রাখা হবে।


আরও পড়ুন :

এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়