• ঢাকা মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

ভাঙা সংসারে শিশুর মানসিক বিকাশ ঘটে না

আরটিভি অনলাইন রিপোার্ট
|  ২৪ জুলাই ২০১৮, ২০:১৬
ভাঙা সংসারে শিশুর শারীরিক বৃদ্ধি ঘটলেও তার মানসিক বিকাশ ঘটে না।

বাবা-মার বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ায় তাদের  আট বছরের শিশুকে হেফাজত সংক্রান্ত মামলার শুনানিকালে আদালত এ মন্তব্য করেন।

আজ  মঙ্গলবার মামলাটি শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। শুনানিকালে  বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ শিশুটির বাবা ও মায়ের উদ্দেশে এ কথা বলেন।

দম্পতির বাড়ি নওগাঁয়।  ২০০৮ সালে তাদের বিয়ে হয়। কিন্তু  দাম্পত্য জীবনে মনোমালিন্যের জেরে গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর শিশুটির বাবা তার মাকে তালাকের নোটিশ পাঠান। শিশুটি তার মায়ের কাছেই ছিল। এ অবস্থায় শিশুকে বেআইনিভাবে আটক রাখা হয়েছে দাবি করে হাইকোর্টে রিট করেন শিশুটির বাবা। এর শুনানি নিয়ে ৩০ মে হাইকোর্ট রুল দেন এবং শিশুটিকে ২৭ জুন আদালতে হাজির করতে সংশ্লিষ্ট পুলিশ ও শিশুর মাকে নির্দেশ দেন। ধার্য তারিখে নওগাঁ সদর থানা-পুলিশ শিশুটিকে আদালতে হাজির করে।

সেদিন শুনানি নিয়ে আদালত আদেশ দেন। আদেশে বলা হয়, শিশুটি চার সপ্তাহ তার মায়ের কাছে থাকবে। বাবা সপ্তাহে কমপক্ষে এক দিন যেকোনো সময় শিশুটির সঙ্গে দেখা করে নিজের কাছে রাখার সুযোগ পাবেন। ২৪ জুলাই পরবর্তী দিন রেখে সেদিন শিশুর বাবা-মাকে আদালতে উপস্থিত হতে বলা হয়। তাই নির্ধারিত তারিখ আজকে তারা  আদালতে হাজির হন।

আদালতে শিশুর বাবার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ এস এম শাহরিয়ার কবির। আর শিশুটির মাকে আইনি সহায়তা দিচ্ছে সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটি। মায়ের পক্ষে শুনানি করেন কমিটির প্যানেল আইনজীবী অমিত দাশগুপ্ত।

বিচ্ছেদের পর তৌহিদা আক্তার শিশুটির বাবা সাজ্জাদুরের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেন। এ বিষয়ে আদালত বলেছেন, মামলা করে সংসার করা যায় না। আদালতে শিশুটির বাবা বলেছেন, শিশুটির মা তার মায়ের সঙ্গে, অর্থ্যাৎ তার শাশুরির সঙ্গে থাকতে চায় না। তখন আদালত বলেন, শাশুড়ি হচ্ছে মায়ের মতো। তাকে নিয়েই তো সংসার করতে হয়।  আদালত এ মামলার পরবর্তী আদেশের জন্য আগামী ৫ আগস্ট পরবর্তী দিন ধার্য করেছেন।

এমকে

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়