শহিদ মিনারে বিশৃঙ্খলা করলে কঠোর ব্যবস্থা

প্রকাশ | ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১২:৩৭ | আপডেট: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ২২:৩৯

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

শহিদ মিনারে যাবার প্রতিটি গেইটে আর্চওয়ে থাকবে। এর মাধ্যমে সাধারণ দর্শকদের চেক করা হবে। কারো কাছে ব্যাগ থাকলে তা তল্লাশি করার পর প্রবেশ করতে দেয়া হবে। ২১ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারের নিরাপত্তা প্রস্তুতি নিয়ে এসব কথা বললেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

রোববার সকালে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে তিনি বলেন,  মৎস্যভবন, বকশী বাজার, শাহবাগ, নীলক্ষেত, পলাশীতে ওইদিন রাত ৮টার পর কোনো গাড়ি আমাদের বেষ্টনি ভেদ করে যেতে পারবে না। তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টিকার লাগানো গাড়ি কিংবা এখানে যারা বসবাস করেন তারা আসতে পারবেন। গাড়িগুলোকে নিৰ্দিষ্ট এলাকায় পার্কিং করতে হবে।    

ডিএমপি কমিশনার জানান,  প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি, মন্ত্রী পরিষদের সদস্য, সংসদের স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার, কূটনৈতিক বিষয়ের সদস্য, বিরোধী দলীয় নেতা মৎস্যভবন, দোয়েল চত্বর, জিমনেশিয়াম হয়ে শহিদ মিনারে প্রবেশ করবেন। এর বাইরে সাধারণ মানুষকে পলাশীর মোড় দিয়ে শহিদ মিনারে আসতে হবে। গণমাধ্যমেও বিষয়টি আগে থেকেই জানিয়ে দেয়া হবে।

তিনি বলেন, এর আগে অনেককে, কোনো দলের কর্মী-সমর্থকদেরও পুলিশ ও স্কটস গাইডকে লাঞ্ছিত করতে দেখা গেছে। শুধু তাই না, শহিদ মিনারের মূল বেদির ওপরে জুতা পায়ে উঠে অনেকে।  এতে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। এবার যদি কেউ বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করে তাহলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এইচএম/ডিএইচ