• ঢাকা শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

ক্রেতা কম, চলছে সাজসজ্জা, আসছে নতুন বই

সিয়াম সারোয়ার জামিল
|  ০১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ২১:০১ | আপডেট : ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১৯:৩৯
বইমেলার উদ্বোধন হয়ে গেলেও অবকাঠামোর সাজসজ্জার পর্ব তেমনটা এগোয়নি। কর্মযজ্ঞ চলছে এখনো। রঙ আর অলংকরণের কাজ করতে দেখা গেছে অধিকাংশ স্টলেই। বেশিরভাগ প্রকাশনীই এখনো নতুন বই আনতে পারেনি।  পুরোনো বইগুলোই আসতে শুরু করেছে কেবল স্টলগুলোর সামনে। বিক্রয়কর্মীদের সেসব সাজাতেই ব্যস্ত দেখা গেলো কয়েকটি স্টলে। প্রথম দিনে ক্রেতাদের হাতে বই তুলে দেয়ার সুযোগ কমই হয়েছে প্রকাশকদের, বরং গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আড্ডা দিলেন তারা।

এবারে সাজসজ্জা বেশ খোলামেলা হলেও প্রচুর শুকনো ধুলো আর বাঁশ–কাঠের টুকরো, দড়ি, রাশি রাশি কাগজের টুকরোসহ হরেক রকমের আবর্জনায় মেলা প্রাঙ্গণের পরিবেশ কিছুটা অস্বস্তিকর। মেলার কয়েকটি স্থানে এখনো লাইটও নেই। ভীষণ অন্ধকার নিয়ে অভিযোগ করতে দেখা গেছে দর্শনার্থীদের। তবে অন্যবারের তুলনায় এবারের মেলা অনেকখানিই ভিন্ন। আয়তন বেড়ে যাওয়ায় খোলামেলা, ছিমছাম পরিবেশ বলছেন প্রকাশকেরা। 

মেলার দর্শনার্থী ও সংস্কৃ্তিকর্মী তুহিন কান্তি দাস বললেন, এবারের মেলার পরিবেশ অপেক্ষাকৃত ভাল হলেও একেবারেই কাজ এগোয়নি। হাটাচলার পথটাও পরিস্কার না। প্রস্তুতি শেষ না করেই মেলা শুরু করায় অতিথিদের হতাশ করেছেন প্রকাশকরা। আরেক দর্শনার্থী শাখাওয়াত হোসেন সেবক বেশ বিরক্তিই প্রকাশ করলেন। বললেন, 'মেলায় অনেক জায়গায় অন্ধকার। আলোকিত করার ব্যবস্থা জরুরি। যত্রতত্র আসবাবপত্র। সর্বত্রই অব্যবস্থাপনা।' 

মেলার বিষয়ে জানতে চাইলে বিপ্লবীদের কথা'র সত্ত্বাধিকারী শেখ রফিক বললেন, এখনো মেলার অধিকাংশ দোকানে কাজই এগোয়নি। তবে আকার-আয়তন বাড়ার কারণে এবারের মেলায় প্যাভিলিয়ন আর স্টলগুলো মনের মতো করে সাজাতে পারবেন বলে আশাবাদী তিনি। জাতীয় সাহিত্য প্রকাশনীর অনিরুদ্ধ দাস অঞ্জন বললেন, 'প্রথম দিনে এখনো মেলার অনেকটাই বেহাল দশা। এখানে সেখানে আসবাবপত্র ফেলে রেখেছে সবাই। গুছিয়ে ওঠার সময় পাইনি আসলে কেউই। নতুন বই আসতে আরো ক'দিন অপেক্ষা করতে হবে।'

তবে মেলা কমিটির সদস্য সচিব জালাল আহমেদ বিষটিকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন। তিনি আরটিভি অনলাইনকে জানালেন, 'বেশ দেরিতে লটারি হয়েছে। সে হিসেবে অনেক দ্রুতই এগিয়েছে মেলার কাজ। মেলার নিরাপত্তার দিকটা আমরা সর্বোচ্চ সতর্কতার সাথেই লক্ষ্য রাখছি। আশা করছি, শুক্রবার থেকেই মেলা জমজমাট হয়ে উঠবে।'

 

এসজে/জেএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়