• ঢাকা বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫

বইমেলার প্রস্তুতি প্রায় শেষ, উদ্বোধন বুধবার [অডিও]

মো: কামাল হোসেন
|  ৩১ জানুয়ারি ২০১৭, ২০:৩১ | আপডেট : ৩১ জানুয়ারি ২০১৭, ২২:০৮
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে বুধবার বিকেল ৩টায় শুরু হচ্ছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা। এরই মধ্যে প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রমের অধিকাংশই শেষ হয়ে গেছে। আর বাকি কাজ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আগেই শেষ হয়ে যাবে বলে আশা জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ঘুরে এবং আয়োজক কমিটির সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

অমর একুশে গ্রন্থমেলা উপলক্ষে প্রস্তুতি চলছে অনেকদিন ধরেই।এ লক্ষ্যে গঠিত হয় আয়োজক কমিটি। গেলো ২৩ জানুয়ারি ডিজিটাল লটারির মাধ্যমে প্রকাশকদের মধ্যে স্টল বরাদ্দ দেয় এই কমিটি। পরে নিজেদের স্টল বুঝে নিয়ে সাজানোর কাজে লেগে যান প্রকাশকরা। পাশাপাশি ভেন্যু প্রস্তুতির কাজে লেগে যায় আয়োজক কমিটি।

মেলার আগের দিন বিকেলে বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ঘুরে দেখা যায়, মেলা ভেন্যু এখনো পুরোপুরি প্রস্তুত হয়নি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মূল মঞ্চ, নজরুল মঞ্চ, মিডিয়া সেন্টারে এখনো কাজ চলছে। এমনকি মেলায় ঢোকার সব ফটক সাজানোর কাজ এখনো পুরোপুরি শেষ হয়নি।

বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মেলার জন্য নির্ধারিত প্রাঙ্গণে ছড়ানো-ছিটানো রয়েছে বাঁশ, ইট, কাঠ, বালি প্রভৃতি। বিভিন্ন ফটকে তোরণ লাগানো ও তাতে রং লাগাতে দেখা গেলো কর্মীদের।

এদিন নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে মেলার মাঠে নামানো হয় ডগ স্কোয়াড। তল্লাসির মাধ্যমে মেলার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যেই তা নামানো হয়।

এবারের মেলায় নিরাপত্তার ব্যাপারটিকেই সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলায় কয়েক স্তরের নিরাপত্তা থাকবে। পুরো এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে মেলায় বরাদ্দ স্টলগুলোর কোনোটিতে সাজসজ্জা শেষে প্রদর্শনীর জন্য বই সাজানো হলেও বেশিরভাগই এখনো প্রস্তুত হয়নি।

অন্য প্রকাশ প্রকাশনীর পক্ষ থেকে ইমতিয়াজুর রহমান আরটিভি অনলাইনকে বলেন, বরাদ্দের পরে নিজেদের ব্যর্থতার কারণেই অনেকেই এখনো স্টল প্রস্তুত করতে পারেনি। যারা প্রথম থেকেই কাজ শুরু করেছে, তাদের স্টল এরই মধ্যে প্রস্তুত হয়ে গেছে।

মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব জালাল আহমেদ আরটিভি অনলাইনকে বলেন, এখন ভেন্যু ও স্টল প্রস্তুতির সমাপনী কাজ চলছে। এখনো যেসব কাজ শেষ হয়নি, সেসব রাত ৮টার মধ্যেই হয়ে যাবে।

গ্রন্থমেলায় টিএসসি, দোয়েল চত্বর দিয়ে ২টি মূল প্রবেশ পথ, বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে ৩টি পথ, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশ ও বাহিরে ৮টি পথ থাকবে।এবারই প্রথম সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশের সুবিধার্থে নতুন সুপ্রশস্ত গেট তৈরি করা হয়েছে।

১ থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ছুটির দিন ব্যতীত প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত মেলা খোলা থাকবে। ছুটির দিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা এবং ২১ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত মেলা চলবে।

কে/ডিএইচ

  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়