প্রথমবারের মতো ভোট চলছে জেলা পরিষদে

প্রকাশ | ২৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ০৮:৫৯ | আপডেট: ২৮ ডিসেম্বর ২০১৬, ১২:৩৫

আরটিভি অনলাইন রিপোর্ট

প্রথমবারের মতো জেলা পরিষদের ভোট শুরু হয়েছে। সকাল ৯টায় শুরু হয় এ ভোট, চলবে দুপুর ২টা পর্যন্ত।  জেলা ও উপজেলার ভোটকেন্দ্রে চেয়ারম্যান, সাধারণ ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ভোট দিচ্ছেন জনপ্রতিনিধিরা।

জাতীয় সংসদসহ স্থানীয় সরকার নির্বাচনে জনগণের সরাসরি ভোটে প্রতিনিধি নির্বাচন হলেও জেলা পরিষদ ভিন্ন। এ নির্বাচন হবে কলেজ অব ইলেক্টোরাল পদ্ধতিতে। এখানে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা ভোট দিয়ে ১ জন চেয়ারম্যান, ১৫ জন কাউন্সিলর ও ৫ জন সংরক্ষিত কাউন্সিলর নির্বাচন করবেন।

পার্বত্য জেলা বাদে দেশের ৬১টি জেলায় হচ্ছে এ নির্বাচন। তবে ভোলা ও ফেনী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্য পদে সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় ওই দুই জেলায়ও ভোট হবে না। এর ফলে ভোটগ্রহণ হচ্ছে বাকি ৫৯ জেলায়। তবে এরইমধ্যে ২২ জেলায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।  

এদিকে সোমবার মধ্যরাত থেকে বন্ধ হয় নির্বাচনী প্রচার। নির্বাচনের দিন যান চলাচলেও আছে বিধি নিষেধ।

জেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সারাদেশে দায়িত্ব পালন করছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ২৩ হাজার সদস্য। প্রতি কেন্দ্রের পাহারায় ২০ সদস্য। কেন্দ্রের বাইরে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে আছে বিজিবি ও র‌্যাব। আর প্যাট্রোলিংয়ের দায়িত্বে র‌্যাব। কোনোরকম বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে ৯১৫ ম্যাজিস্ট্রেট এবং ৯১ বিচারিক ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করছেন।

এদিকে যাচাইবাছাই শেষে গেলো ১২ ডিসেম্বর ৩৯ জেলায় ১২৪ চেয়ারম্যান প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দ দেন নির্বাচন কমিশন। সাধারণ সদস্য পদে ২ হাজার ৯৮৫ এবং সংরক্ষিত (নারী) সদস্য পদে ৮০৬ জন প্রার্থী হয়েছেন। এছাড়া ২২ জেলায় রয়েছে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী। নির্বাচনে তফসিল ঘোষণার পর চেয়ারম্যান, সাধারণ ও সংরক্ষিত নারী সদস্যপদে মোট প্রার্থী ৩ হাজার ৯৩৮ জন।

এসএস/ এস